অম্লানজ্যোতি ঘোষ, আলিপুরদুয়ার, ১৩ ডিসেম্বর- উপনির্বাচনের দিন ঘোষণা হয়নি, কিন্তু ফালাকাটায় নির্বাচনী প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে। তৃণমূল বিধায়ক অনিল অধিকারীর মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়। যে কোনও দিন উপনির্বাচন ঘোষণা হতে পারে ভেবে প্রস্তুতিতে কোনও ফাঁক রাখছে না তৃণমূল। সোমবার ফালাকাটা কমিউনিটি হলে ছিল দলীয় কর্মিসভা। ছিলেন তিন মন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জি, মলয় ঘটক ও পূর্ণেন্দু বসু। তিন মন্ত্রীই এখন থেকে নির্বাচনের কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ার বার্তা দিলেন। উপনির্বাচনে বিশেষ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মন্ত্রী রাজীব ব্যানার্জিকে। তিনি শুরুতেই লক্ষ্য বেঁধে দেন। তিনি বলেন, ‘‌লোকসভায় আমরা ফালাকাটায় ২৭ হাজার ভোটে পিছিয়ে ছিলাম। উপনির্বাচনে অন্তত ৫০ হাজার ভোটে জিতত হবে, এই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করুন। প্রার্থী কে হবেন, তা মমতা ব্যানার্জিই ঠিক করবেন। তবে ১৫ দিনের মধ্যেই উপনির্বাচনের দিন ঘোষণা হতে পারে, এটা ভেবে এখন থেকেই ঝাঁপিয়ে পড়ুন। পার্টি অফিসে নয়, পাড়ায় পাড়ায় যান। প্রতিটি মানুষকে বলুন, আমাদের যদি কোনও ভুল হয়ে থাকে, ক্ষমা করে দিন।’‌ কীভাবে নির্বাচনে লড়া হবে, সেই কৌশলও বুঝিয়ে দেন রাজীব। তিনি বলেন, ‘‌৭ দিনের মধ্যে প্রতিটি বুথ থেকে ১০ জন সক্রিয় কর্মী নিয়ে একটি দল তৈরি হবে। কর্মীদের নাম, ফোন নম্বর, ছবি দিতে হবে। ভোট না হওয়া পর্যন্ত আমার ব্যাক অফিসের কাজ চলবে।’‌ লোকসভা ভোটে দলের কিছু কর্মীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। তাই রাজীব হুঁশিয়ারি দিলেন, ‘‌যাঁরা এখনও আখের গোছানোর কথা ভাবছেন, তাঁরা এখনই দল ছেড়ে চলে যেতে পারেন।’‌

 ছবি:‌ প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top