দেবব্রত দে সরকার, কোচবিহার: কোচবিহারে এক গুচ্ছ প্রকল্পের সূচনা করলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। এদিন তুফানগঞ্জে উল্লারখাওয়া সেতুর শিলান্যাস, কোচবিহার পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ে সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প ও কোচবিহার শহরের নীলকুঠি সিস্টার নিবেদিতা গার্লস হাই স্কুলে সুবর্ণজয়ন্তী বর্ষের তোরণ, বাউন্ডারি ওয়াল ও শৌচালয় ব্লকের কাজের সূচনা করা হয়। এই অনুষ্ঠানগুলিতে উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ ছাড়াও দপ্তরের সচিব বরুণ রায়, কোচবিহার জেলা পরিষদের সভাধিপতি পুষ্পিতা রায় ডাকুয়া, কোচবিহার পুরসভার পুরপ্রধান ভূষণ সিং উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ তুফানগঞ্জে রায়ডাক নদীর ওপর উল্লারখাওয়া সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে বলেন, ‘‌স্বাধীনতার পর বিগত সরকারের সময় উল্লারখাওয়ার সেতু নির্মাণের কথা কেউ ভাবেনি। রাজ্যে ক্ষমতা পরিবর্তনের পর এখানে সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়।’‌ মন্ত্রী জানান, মাটি পরীক্ষায় ও সেতুর ডিজাইনে ত্রুটি থাকায় সেতু তৈরির কাজ শুরু করতে দেরি হয়। শেষে খড়্গপুরের আইআইটি–র সাহায্য নিয়ে এই সেতুর ডিজাইন তৈরি করা হয়েছে। এই সেতুর জন্য প্রায় ৮ কোটি টাকা বরাদ্দ করে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর। এই সেতুর নির্মাণকাজ শেষ হলে তুফানগঞ্জ–বক্সিরহাট যুক্ত হবে। দূরত্ব কমবে ১০–৮ কিমি। উপকৃত হবেন নদীর উভয় দিকের ১০ লক্ষ মানুষ। বক্সিরহাট সংলগ্ন এলাকার রোগী, কৃষক, ছাত্রছাত্রীরা সহজে মহকুমা শহর তুফানগঞ্জে যেতে পারবেন। তিনি এই সেতুর কাজ দ্রুত শেষ করার জন্য এলাকার মানুষের সহযোগিতা চান। 
এদিন, কোচবিহার শহরের নীলকুঠি সিস্টার নিবেদিতা গার্লস হাই স্কুলের সুবর্ণজয়ন্তী তোরণ, বাউন্ডারি ওয়াল ও শৌচালয় ব্লকের কাজের সূচনা করেন রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। বরাদ্দ হয়েছে ৪৪ লক্ষ টাকা। মন্ত্রী জানান, এই বিদ্যালয়টি রং করে দেবে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর। বাড়তি ৬ লক্ষ টাকা দেওয়া হবে। উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের আর্থিক সহায়তায় এদিন কোচবিহার পঞ্চানন বর্মা বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০০ কিলোওয়াট সৌরশক্তি প্রকল্পের কাজের সূচনাও করেন মন্ত্রী। কোচবিহার পুরসভা পরিচালিত মহাশ্মশান পরিদর্শন করেন তিনি। এখানে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তর ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে আরও দুটি বৈদ্যুতিক চুল্লি তৈরি করবে। এদিন কোচবিহারে আর্ট গ্যালারি গড়তে কোচবিহারের চিত্রশিল্পীদের সঙ্গে কথা বলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের সচিব বরুণ রায় ও আধিকারিকেরা।‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top