অতীশ সেন, বানারহাট, ১৩ আগস্ট- জনসংযোগ কর্মসূচিতে গিয়ে চা–‌শ্রমিকের ঘরে রাত কাটালেন ধূপগুড়ির বিধায়ক মিতালি রায়। ‘‌দিদিকে বলো’‌ কর্মসূচিকে সামনে রেখে জনসংযোগ করতে সোমবার সন্ধেয় বানারহাটের তোতাপাড়া চা–‌বাগানে যান বিধায়ক। প্রবল ঝড় বৃষ্টির মধ্যেই রাতে বেশ কিছু মানুষের সঙ্গে কথা বলার পাশাপাশি শঙ্কর ওরাওঁ নামে এক চা–‌শ্রমিকের বাড়িতে রাত্রি যাপান করেন তিনি। ওই শ্রমিকের বাড়িতেই রাতে সামান্য ডালভাত দিয়ে রাতের খাওয়া সারেন।
মঙ্গলবার ভোরবেলা থেকে তোতাপাড়া বাগানের শ্রমিক মহল্লার বাঁশবাড়ি লাইন, সুকা লাইন, চাপরাশি লাইন, বিরুয়া লাইন ইত্যাদি নানা এলাকায় ঘুরে সাধারণ শ্রমিক ও বাসিন্দাদের সমস্যার কথা শোনেন। বাসিন্দারাও এলাকার বিধায়ককে কাছে পেয়ে তাদের নানা সমস্যার কথা খুলে বলেন।
 সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ বাগানে তৃণমূলের পতাকা উত্তোলন করে ফিরে যান মিতালিদেবী। স্থানীয় বাসিন্দা মীনা ওঁরাও, শান্তি রাইরা জানান, বিধায়ক চা–‌শ্রমিকদের ঘরের দৈনন্দিন সমস্যাগুলি নিজে চোখে দেখার পাশাপাশি তা অনুভবও করেছেন। এলাকায় পানীয় জলের সমস্যা, বেহাল সড়ক, বন্যজন্তুদের নিয়মিত হানা, পথবাতি–‌সহ নানা সমস্যাগুলি তাঁরা বিধায়ককে জানিয়েছেন। মিতালি রায় বলেন, ‘‌মমতা ব্যানার্জির নির্দেশেই বিভিন্ন এলাকায় এই জনসংযোগ কর্মসূচি শুরু হয়েছে। প্রতিটি কর্মসূচির বিস্তারিত রিপোর্ট আমরা ওপর মহলে পেশ করছি। জনগণের সমস্যা তাঁদের পাশে থেকে জানা ও তার সমাধানের পথ খুঁজে বের করাই এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য।’‌

রাতে একসঙ্গে পাত পেড়ে খাওয়া। চা–‌শ্রমিকের বাড়িতে বিধায়ক মিতালি রায়। ছবি:‌ প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top