সঞ্জয় বিশ্বাস, দার্জিলিং: হিল এরিয়া ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান করা হয়েছে মন ঘিসিংকে। মুখ্যমন্ত্রীর দেওয়া এই দায়িত্ব পেয়ে খুশি জিএনএলএফ নেতারা। সক্রিয় হয়ে উঠেছেন মন ঘিসিং। এদিন দলবল নিয়ে পাহাড় পরিদর্শনে বেরিয়ে পড়েন তিনি। দার্জিলিঙের বিভিন্ন এলাকায় মানুষের সঙ্গে দেখা করেন, কথা বলেন, সমস্যার খুঁটিনাটি শোনেন। হিল ডেভেলপমেন্ট কমিটির কাজ শুরুর আগেই মানুষের চাহিদা, পাহাড়ের প্রয়োজন– সহ নানা বিষয় এভাবে জেনে নেওয়ার চেষ্টা করছেন মন। বিনয় তামাং, অনীত থাপারা যেভাবে জিটিএ–র কাজ এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তৎপর, ঠিক সেইভাবে পাহাড় উন্নয়নের কাজে জিএনএলএফের ময়দানে নেমে পড়াকে ভাল চোখেই দেখছে রাজনৈতিক মহল। এভাবে সব রাজনৈতিক দলের সক্রিয়তা বাড়লে পাহাড়ে গণতান্ত্রিক পরিবেশ তৈরি সহজ হবে। এদিকে, রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এখন থেকে জিটিএ–র অস্থায়ী কর্মচারীরাও অবসরের সময় ২ লক্ষ টাকা করে পাবেন। শুধু তাই নয়, কর্মরত অবস্থায় মৃত্যু হলেও এককালীন আর্থিক সাহায্য পাবেন বলে বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে। এই খবর পাহাড়ে পৌঁছতেই খুশির উচ্ছ্বাস ছড়িয়ে পড়েছে। জিটিএ–র প্রশাসক বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান অনীত থাপা জানান, রাজ্য সরকারের কাছ থেকে পাওয়া এই উপহার আমাদের কাছে অপ্রত্যাশিত। পাহাড়ের প্রতিটি মানুষ এতে খুব খুশি হবেন। আমরা মুখ্যমন্ত্রীকে এই উপহারের জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। অন্যদিকে, পাহাড়ে পুলিসের তল্লাশি এখনও চলছে। কালিম্পঙে গত রাতে অশোক গর্গ নামে এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে হানা দেয় পুলিস।‌

পাহাড়ের মানুষের কথা শুনছেন মন ঘিসিং। বুধবার। ছবি:‌ সঞ্জয় বিশ্বাস

জনপ্রিয়

Back To Top