ফালাকাটায় গণবিবাহের আসরে আদিবাসী নাচে পা মেলালেন মমতা

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফালাকাটায় রীতিমতো অভিভাবকের ভূমিকায় দেখা গেল মমতা ব্যানার্জিকে। গণবিবাহের আসরে দাঁড়িয়ে পাত্র–পাত্রীদের হাতে তুলে দিলেন উপহার। পা মেলালেন আদিবাসী নাচে। মঙ্গলবার উত্তরবঙ্গ সফরের দ্বিতীয় দিনে ফালাকাটায় একটি সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখান থেকে চা শ্রমিকদের সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন। চা সুন্দরী প্রকল্পের জন্য ঘোষণা করেন ৫০০ কোটি টাকা। তিনবছরের মধ্যে গৃহহীনদের ঘর পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। জানান, ফালাকাটা–ময়নাগুড়ি পুরসভার কথা। বলেন, ‘‌তৃণমূল যা বলে তাই করে। কারও কারও মতো ভোটের সময় সাধারণ মানুষের কথা মনে পড়ে না।’‌ মমতার কথায়, ‘‌অপপ্রচার, চরিত্রহনন করা ছাড়া ওদের কোনও কাজ নেই।’‌ মমতার সংযোজন, ‘‌বিজেপির এতগুলি এমপি জিতেছে, কোন কাজ করেছে? এতগুলি চা বাগান বন্ধ, কিছু করেছে? আমি মনে করি, আমাদের সরকার মানুষের সরকার, কৃষকদের সরকার, আদিবাসী খেটেখাওয়া মানুষের সরকার। আমরা কৃষক বিরোধী কোনো কাজ করবো না। আগামীদিনেও বিনা পয়সায় সবাই রেশন ও স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড পাবেন।’‌ এরপরই গণবিবাহের অনুষ্ঠানে শামিল হন মুখ্যমন্ত্রী। নিজের হাতে পাত্র–পাত্রীর হাতে তুলে দেন উপহার সামগ্রী। কুশল বিনিময়ের পাশাপাশি বর–কনেদের নতুন জীবনের জন্য শুভেচ্ছা জানান। বিবাহের আসরের পাশেই নাচে মেতে উঠেছিলেন আদিবাসী মহিলারা। তাঁদের সঙ্গেই পা মেলান মমতা। মুখ্যমন্ত্রীকে ঠিক ‘দিদি’র মতো পাশে পেয়ে আপ্লুত প্রত্যেকে।