পঙ্কজ সরকার,মালদা: ফের ‘‌দিদিকে বলো’ তে ফোন করে মুশকিল আসান। কোনও রকম বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল হরিশ্চন্দ্রপুর–সিউড়ি সরকারি বাস পরিষেবা। ‘‌দিদিকে বলো’র নির্ধারিত নম্বরে ফোন করে জানানোর ৫ দিনের মধ্যেই পুনরায় চালু করা হল পরিষেবা। গত সোমবার থেকে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার তরফে পরিষেবা ফের চালু করা হয়েছে। সরকারের এই তৎপরতায় খুশি এলাকার মানুষ। দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থা‌র অধীনস্থ ৩টি বাস এখনও বন্ধ রয়েছে বলে জানা গেছে। সেগুলিও চালু করার ব্যাপারে স্থানীয় বাসিন্দারা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাবেন বলে জানা গেছে।
হরিশ্চন্দ্রপুর থেকে মালদা শহরে যাওয়ার রেলপথে যেমন যোগাযোগ ব্যবস্থা রয়েছে, তেমনই সড়কপথেও যোগাযোগ রয়েছে। শুধুমাত্র শহরই নয় সড়কপথে দক্ষিণবঙ্গের সঙ্গেও হরিশ্চন্দ্রপুরের উন্নত পরিষেবা চালু ছিল। কলকাতা যাওয়ার জন্য মালদা শহর হয়ে মোট ৪টি সরকারি বাস পরিষেবা চালু ছিল। উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার অধীনে হরিশ্চন্দ্রপুর–‌সিউড়ি বাস পরিষেবা যেমন ছিল, তেমনই দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহণ সংস্থার অধীনে হরিশ্চন্দ্রপুর থেকে বর্ধমান, দুর্গাপুর ও কলকাতা রুটে ৩টি বাস পরিষেবা চালু ছিল। কোনও অজ্ঞাত কারণে বছর দুয়েক ধরে এই ৩ বাস পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ক’‌দিন আগে হরিশ্চন্দ্রপুর–‌সিউড়ি বাস পরিষেবাও বন্ধ করে দেওয়া হয়। এর ফলে বিপাকে পড়েন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের সমস্যার কথা রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে জানানোর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রীর ‘‌দিদিকে বলো’‌–তে ফোন করে জানানো হয়। এতেই বন্ধ হওয়ার ৫ দিনের মাথায় পুনরায় বাস পরিষেবা চালু হয়েছে। 
হরিশ্চন্দ্রপুর–‌১ ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেসের সহ–‌সভাপতি রুহুল আমিন জানান, ‘‌মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগেই ফের বাস পরিষেবা চালু হল। যদিও এখনও ৩টি বাস পরিষেবা বন্ধ রয়েছে। এগুলিও চালু করার ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাব। আশা করি তিনি আমাদের আবেদনে সাড়া দেবেন।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top