চা শ্রমিক থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, বার্লাকে নিয়ে মেতে লক্ষ্মীপাড়া 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ চা শ্রমিক থেকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। খুশিতে মাতলো লক্ষ্মীপাড়া চা বাগান।

বুধবার সন্ধেয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন আলিপুরদুয়ারের সাংসদ তথা জলপাইগুড়ি জেলার বানারহাট ব্লকের লক্ষীপাড়া চা বাগানের চা শ্রমিক জন বার্লা। দীর্ঘদিন আদিবাসী আন্দোলনের সঙ্গে যুক্ত। ধীরে ধীরে আদিবাসী আন্দোলনের মুখ হয়ে উঠেন। এরপর ২০১৯ সালে সাংসদ নির্বাচিত হন আলিপুরদুয়ার থেকে। আর বুধবার যখন মন্ত্রী হিসাবে শপথ নিচ্ছিলেন, তখন এলাকার প্রতিবেশী থেকে পরিবারের সদস্যরা টিভিতে চোখ রেখেছিলেন। জন বার্লা শপথ নিতেই লক্ষীপাড়া চা বাগানের কাছে বার্লার বাড়ির সামনে চলল আবির খেলা, সঙ্গে মিষ্টি বিতরণ। চা বাগানের যুবক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়ায় রীতিমতো আনন্দে ভাসছেন চা শ্রমিকরা।  
আশা এবার তাঁদের সমস্যার সমাধান হবে। সিপিআইএম এর রাজ্য কমিটির সদস্য তথা জয়েন্ট ফোরামের কনভেনার জিয়াউর আলম বলেন ‘‌চা শ্রমিক আজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। স্বাভাবিকভাবেই আমরা আশা করছি চা বাগানের যে সমস্যা, শ্রমিকদের সমস্যা এই সমস্ত নিয়ে তিনি পদক্ষেপ নেবেন এবং সমস্যা সমাধানের জন্য উদ্যোগী হবেন। তবে কেন্দ্রীয় সরকারের নীতিতে চা বাগান শ্রমিকদের যে ক্ষতি হচ্ছে, সেই নীতির পরিবর্তনে এমনকি বন্ধ চা বাগান খোলা নিয়ে জল বার্লা কতটা কি করতে পারবেন সেটা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।’‌ এরপরই তাঁর সংযোজন, ‘‌২০১৬ সালে বিড়পাড়ায় এসে প্রধানমন্ত্রী বন্ধ চা বাগান খোলার বিষয়ে কথা বলেছিলেন। তবে আজ অবধি তা খোলার উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। তবে জন বার্লার জন্য শুভেচ্ছা রইল।’‌