অলক সরকার, শিলিগুড়ি: দার্জিলিং বিধানসভা উপনির্বাচনে গুরুংপন্থী মোর্চা শেষমেশ বিজেপি–‌‌র প্রতীকে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রার্থী করা হয়েছে দার্জিলিঙের স্থায়ী বাসিন্দা নীরজ জিম্বাকে। নীরজ জিম্বা আবার জিএনএলএফের মুখপাত্র। লোকসভা নির্বাচনেও বিজেপি–‌র প্রতীকেই দাঁড় করানো হয়েছিল রাজু বিস্তকে। সঙ্গে ছিল গুরুংপন্থী মোর্চা ও জিএনএলএফ। সেই কারণেই এবার জিএনএলএফ থেকে প্রার্থী বাছা হয়েছে। কিন্তু প্রতীক দেওয়া হচ্ছে বিজেপি–‌র। প্রার্থী হয়েই নীরজ জিম্বার দাবি, এটা তাঁদের কাছে একটা বড় সুযোগ। 
একদিকে বিনয় তামাং, পাহাড়ের রাজনীতিতে পরিচিত মুখ। তাঁর বিরুদ্ধে অনেকটাই আনকোরা নীরজ। তাই লড়াই কতটা হবে, খোদ গুরুং শিবিরেও সংশয়। গুরুংরা যখন রাজনৈতিকভাবে পাহাড়ে প্রায় বিপন্ন, তখন বিজেপি সুবিধে নিতে এতটুকু পিছপা হয়নি। গুরুংরাও উপায়ান্তর না পেয়ে পদ্মফুল প্রতীকে প্রার্থী দিতে বাধ্য হয়েছেন। কিন্তু এই সিদ্ধান্ত সাধারণ মানুষ কীভাবে নেবেন, তা নিয়ে সংশয়ে গুরুংপন্থীরা। পাহাড়ে ১০৪ দিনের ঝামেলার সময় বিজেপি সাংসদ সেখানে যাননি, তাই নিয়ে মানুষের মনে প্রচণ্ড ক্ষোভ আছেই। সে কারণেই এবারে বিজেপি–‌কে প্রার্থী পরিবর্তন করতে হয়েছে। অথচ এরপরেও পাহাড়ের মানুষের প্রত্যাশার কথা ইস্তাহারে প্রতিফলিত হয়নি। বিজেপি–‌র প্রার্থী হয়ে জিএনএলএফ নেতা নীরজ জিম্বা জানান, ‘‌বিজেপি আমাদের মতো আঞ্চলিক দলকে আরও বড় পরিসরে লড়াই করার সুযোগ করে দিচ্ছে।’‌ শুক্রবার প্রার্থী ঘোষণা করতে গুরুংপন্থী নেতা লুপসাম লামা, বিপি বাজগিংরা শিলিগুড়ি জার্নালিস্ট ক্লাবে হাজির হয়েছিলেন।

নীরজ লাম্বা।ছবি: শুভঙ্কর পাল

জনপ্রিয়

Back To Top