সঞ্জয় বিশ্বাস, দার্জিলিং: দার্জিলিঙের প্রথম মহিলা পুরপ্রধান হিসেবে শপথ নিলেন প্রতিভা রাই। লাডেন লা রোডে তখন উচ্ছ্বাস আর আনন্দে দিশেহারা মানুষ। শপথগ্রহণ নিয়ে এতটা উচ্ছ্বাস এর আগে দার্জিলিঙের মানুষ দেখেননি। একদিকে শপথ অনুষ্ঠান চলছে, অন্যদিকে ফাটছে পটকা, উড়ছে আবির। শয়ে শয়ে মানুষের জমায়েত। শপথগ্রহণ পর্ব মিটতেই নতুন পুরপ্রধানকে নিয়ে বেরিয়ে পড়ে মিছিল। সেই মিছিল পৌঁছয় চকবাজার পর্যন্ত। সেখানে একটি পথসভা করা হয়। সেই সভায় প্রথম ভাষণ দেন প্রতিভা রাই। তাঁর বক্তব্য জুড়ে ছিল বিনয়–বন্দনা। বলেন, ‘‌বিনয় তামাং–অনীত থাপার হাতে পাহাড়ের রাশ আসার পরই নারীদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে। আমি পুরপ্রধান হলাম। স্কুল বোর্ডের চেয়ারম্যান করা হয়েছে সিরিং দাহালকে। ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি করা হয়েছে করুণা গুরুংকে। এই প্রবণতা পাহাড়কে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’‌ একই মঞ্চে দাঁড়িয়ে বক্তব্য পেশ করেন বিমল গুরুংয়ের একসময়ের ঘনিষ্ঠ সঙ্গী সতীশ পোখরেল। তিনি গুরুংকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘‌এখন আর পাতলেবাস থেকে রিমোটে কন্ট্রোল হবে না। মোর্চা একটাই আছে এবং তার সভাপতি বিনয় তামাং, সহ–সভাপতি অনীত থাপা। পাহাড়কে সুইৎজারল্যান্ড করা প্রসঙ্গ নিয়ে বিদ্রুপ করা হয়েছে একসময়। আমরা পাহাড়কে সুইৎজারল্যান্ড বানিয়েই ছাড়ব। ১০৪ দিনের বন্‌ধে পাহাড় বরবাদ হয়েছে। আবার পাহাড়কে স্বগরিমায় ফিরিয়ে আনব।’‌‌

প্রতিভা রাইকে নিয়ে মিছিল। দার্জিলিঙে, মঙ্গলবার। ছবি:‌ সঞ্জয় বিশ্বাস
 

জনপ্রিয়

Back To Top