সঞ্জয় বিশ্বাস, দার্জিলিং: পাহাড়ে জয় না এলেও মুষড়ে পড়েনি বিনয়পন্থী মোর্চা। রাজ্য সরকার ও তৃণমূলের প্রতি তাদের কৃতজ্ঞতা জানাতে রবিবারই হল বড় জমায়েত। মোর্চা নেতারা জানিয়ে দিলেন, আগামী দিনেও তাঁরা রাজ্য সরকারের পাশেই থাকবেন। আরও এক ধাপ এগিয়ে বিনয় তামাং জানিয়ে দিলেন, ২০২১–এর নির্বাচনেও তাঁরা তৃণমূলের পাশে থেকেই লড়াই করতে চান। বিজেপি ও সহযোগীদের সামনে খোলা মাঠ ছেড়ে দেওয়া হবে না, তাও পরিষ্কার জানিয়ে দিল মোর্চার বিনয়পন্থী শিবির। রবিবার দার্জিলিং জজ বাজারের দপ্তরে দলের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে বসেন মোর্চা নেতৃত্ব। যত দ্রুত সম্ভব, পাল্টা পথে নামার সিদ্ধান্ত হয়েছে। যাবতীয় জল্পনাকে দূরে সরিয়ে বিনয় তামাং জানান, রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস নেওয়ার কোনও প্রশ্ন নেই। বরং আমরা যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, তা পূরণ করতে সর্বাত্মক উদ্যোগ নেব। পাশাপাশি পাহাড়ের নতুন বিজেপি সাংসদ রাজু বিস্ত যে পাহাড় সমস্যার স্থায়ী সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, সেই স্থায়ী সমাধান কোন পথে আসবে,‌ সেই প্রশ্নও তোলেন বিনয়।‌ 
রবিবারের বৈঠক থেকেই স্পষ্ট হয়ে গেছে, বিজেপি–‌কে প্রতি পদেই কড়া টক্কর দিতে তৈরি বিনয় শিবির। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, রাজ্য সরকারের সঙ্গে থেকেই পাহাড়ের উন্নয়নের কাজ চালিয়ে যাওয়া হবে। এমনকী ২০২১ সালের রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনেও তৃণমূলের সঙ্গে থেকেই লড়াই করা হবে। খুব শিগগিরই পাহাড়ের ফলাফলের বিশ্লেষণ করে জনসম্পর্ক অভিযানে নামার সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়েছে। বিনয় তামাং পরিষ্কার জানান, পাহাড়ে কোনওভাবেই তাঁরা অশান্তি মেনে নেবেন না। শান্তি বজায় রাখার জন্য সমস্তরকম পদক্ষেপ করা হবে। এমনকী এগারো জনজাতির স্বীকৃতির দাবি নিয়ে তিনি দ্রুত দিল্লি যাবেন বলেও জানিয়ে দেন বিনয়। অমর সিং রাইকে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়ায় মুখ্যমন্ত্রীকে মোর্চার পক্ষ থেকে ধন্যবাদও জানানো হয়। দার্জিলিং পুরসভার চেয়ারম্যান প্রতিভা রাইয়ের নেতৃত্বে চকবাজারে একটি জমায়েত হয়। রাজ্য সরকারকে ধন্যবাদ জানান বিনয়পন্থী মোর্চার কর্মী–সমর্থকেরা। এই উপলক্ষে পটকাও ফাটানো হয়। 
মিরিকের তৃণমূল কর্মী–সমর্থকেরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে এদিন পথে নামেন। কাগজে ‘‌উই আর সরি’‌ লিখে রাস্তার পাশে দঁাড়িয়ে থাকেন কর্মীরা। তাঁরা জানান, মুখ্যমন্ত্রী পাহাড়ের উন্নয়নে নতুন দিগন্ত খুলে দিয়েছেন। তিনি নিজে বারবার পাহাড়ে এসে সমস্যার সমাধান করেছেন। এরপরেও এমন ফল প্রত্যাশিত ছিল না। আমরা সেই আস্থার মর্যাদা রাখতে পারিনি।
 

জনপ্রিয়

Back To Top