সঞ্জয় বিশ্বাস, দার্জিলিং: মনোনয়ন জমা করার দিনই তাক লাগিয়ে দিলেন বিনয় তামাং। দার্জিলিং শহরে মানুষের ঢল দেখে অবাক হতে হল সর্বস্তরের মানুষকে। একদিকে মোর্চা, অন্যদিকে তৃণমূল, যৌথভাবে তারা এদিন বিশাল মিছিল করে মনোনয়ন জমা করল। মিছিলের বহর দেখেই আত্মবিশ্বাসী বিনয় তামাং জানিয়ে দিলেন, ‘‌পাহাড়ের মানুষকে সাংসদের সঙ্গে এবারে বিধায়কও উপহার দেওয়া হবে। আর আমরা রাজ্য সরকারের সঙ্গে যেভাবে সেতুবন্ধন রক্ষা করে এগিয়ে চলেছি, তাতে বিধায়ক হলেই উন্নয়নের বন্যা বইবে পাহাড়ে।’‌ শুক্রবার সকাল ১১টা থেকে পাহাড়ে জমায়েত হতে থাকেন মোর্চা ও তৃণমূলের কর্মীরা। দার্জিলিং রেল স্টেশন থেকে তাঁরা বিশাল মিছিল করে মনোনয়ন জমা দেওয়ার জন্য এগোতে শুরু করেন। গোটা দার্জিলিং শহর এদিন মানুষে মানুষে একাকার হয়ে গিয়েছিল। বিনয় তামাং জানান, ‘‌বিরোধী দলগুলো আমাদের চেয়ারলোভী বলে মন্তব্য করেছে। জিটিএ থেকে সরে এসে তার জবাব দিয়েছি। আমার উদ্দেশ্য পাহাড়ের জন্য কাজ করা। একটা সেতুবন্ধন রচনা করছি। বিধায়ক হলে উন্নয়নের বন্যা বয়ে যাবে। আমরা পাহাড়ের মানুষের জন্য জমির পাট্টার পাশাপাশি দার্জিলিংকে পুরনিগম, নতুন মহকুমা, নতুন পুরসভা গঠনের বিষয়ে অগ্রাধিকার দেব।’‌ এদিনের মিছিলে তৃণমূলের নেতা‌ এন বি খাওয়া, রাজ্যসভার সাংসদ শান্তা ছেত্রি, মোর্চার অনীত থাপা–‌সহ সবাই ছিলেন। জানা গেছে, শনিবার থেকেই তাঁরা মানুষের কাছে যাবেন। মানুষকে আরও একবার আবেদন করবেন পাহাড়ে শান্তি ও উন্নয়নের পক্ষে থাকার জন্য।

মনোনয়ন জমা দিতে যাচ্ছেন বিনয় তামাং। সঙ্গে সাংসদ শান্তা ছেত্রি। ছবি: প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top