গিরিশ মজুমদার, শিলিগুড়ি: প্রতিদিন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ৩০ থেকে ৩৫টি করোনা পরীক্ষা করতে পারে। সেইমতো সদ্য চালু হওয়া মেডিক্যালের ভাইরাল ল্যাবে পরীক্ষা হয়ে আসছে। তবে এখন কিটের চাহিদা দেখা দিয়েছে। এজন্য কিট চেয়ে পাঠানো হয়েছে। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, দ্বিতীয় ধাপে এখনও কিট আসেনি। কলকাতার নাইসেডের মাধ্যমে কেন্দ্রকে জানানো হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত সাড়া মেলেনি। 
উল্লেখ্য, দিল্লি পর্যাপ্ত কিট দিচ্ছে না বলে অভিযোগ রয়েছে। জানা গেছে, পুনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি থেকে আসে করোনা পরীক্ষার এই কিট। কলকাতার নাইসেড হয়ে তা চলে যায় রাজ্যের অন্যত্র পরীক্ষাকেন্দ্রে। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রথম দফায় কিট এসেছিল। তা দিয়ে ইতিমধ্যে পরীক্ষা শুরু হয়ে গেছে। তবে কয়েকদিন ধরে এখানে আক্রান্ত কিংবা সন্দেহভাজনের সংখ্যা কম হওয়ায় পরীক্ষাও কম হয়েছে। 
এখন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজের আইসোলেশন ওয়ার্ডে একজন করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন। বাকি ৪ জন রয়েছেন মাটিগাড়া সংলগ্ন একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে। সেখানে কালিম্পঙের মৃত মহিলার পরিজনের ১০ জনের মধ্যে দু’‌দফায় ৭ জনকে ছুটি দেওয়া হয়েছে। তাদের করোনা পজিটিভ ছিল। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন তাঁরা। বাকি তিনজনকেও ছুটি দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। 
হাসপাতালের সুপার ডাঃ কৌশিক সমাজদার বলেন, ‘‌কিটের জন্য বলা হয়েছে। তবে পরীক্ষা থেমে নেই।’‌ এদিকে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, করোনার সন্দেহভাজনদের রাখার জন্য কাওয়াখালির সরকার অধিগৃহীত নার্সিংহোমে বাধা দেওয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে ওই নার্সিংহোমের দুই কর্মীকে।‌

জনপ্রিয়

Back To Top