‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সোনাদানা বা টাকাপয়সা নয়, বন্দুক দেখিয়ে খাবার লুঠ করার চেষ্টা করতে গিয়ে ঠাঁই হল হাজতে। এমনই ঘটনা ঘটেছে নয়ডায়। একটি রেস্তোরাঁর মালিকের ওপরে বন্দুক নিয়ে চড়াও হয় স্থানীয় এক যুবক। তার দাবি ছিল, বিনামূল্যে খাবার দিতে হবে তাকে। নয়ডায় ওই দোকানটি অত্যন্ত জনপ্রিয়। জনসমাগমও হয় প্রচুর। বেগতিক দেখে ক্রেতাদের মধ্যেই একজন ফোন করে স্থানীয় থানায় খবর দেন। পুলিস এসে গ্রেপ্তার করে রাহুলকে। নয়ডার সেক্টর ৪৯ থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিক অনীতা চৌহান বলেছেন, ‘‌রেস্তোরাঁর মালিকের বয়ান থেকে আমরা জানতে পেরেছি, প্রায়শই ওই যুবক বন্দুক নিয়ে বিনা পয়সায় খাবার সংগ্রহ করতো। কর্মচারীদের ভয় দেখাতো খাবার না দিলে তাদের হত্যা করা হবে। এলাকায় রাহুলের যথেষ্ট দুর্নাম রয়েছে। তাই তার সঙ্গে বিবাদ বাড়াতেন না ওই রেস্তোরাঁর কর্মচারীরা। কয়েকবার ছুরি নিয়ে এসেও ভয় দেখিয়েছে রাহুল। কখনও আবার রাজুর সঙ্গে থাকত কয়েকজন বন্ধু।’‌
তার বিরুদ্ধে বেআইনি অস্ত্র রাখা, ভয় দেখানো, ডাকাতির চেষ্টা— একাধিক অভিযোগে মামলা রুজু করা হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে রাহুলের সাত বছরের জেল হতে পারে।

জনপ্রিয়

Back To Top