আজকাল ওয়েবডেস্ক: সাদা এসইউভি গাড়ি পিষে দিয়ে চলে যাচ্ছে এক কৃষকের সবজির ডালা। এমনই ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যা একজন গরীবকে আরও দারিদ্রের পথে ঠেলে দিল।‌ কারণ রাস্তায় বসে ব্যবসা করতে গেলে প্রশাসনের অনুমতি নিতে হয়। তিনি সেটা নেননি। আর এই অপরাধের জন্য শাস্তি পেতে হল এক কৃষককে। তাঁর সমস্ত সবজি পিষে দিল সরকারি গাড়ি।
এই ভিডিও ভাইরাল হতেই প্রশ্ন উঠছে, আইনের রক্ষকরা কী করে আইন নিজেদের হাতে তুলে নেন?‌ যে সরকারি কর্মীর দিকে অভিযোগের আঙুল উঠেছে তিনি পাল্টা অভিযোগ করেছেন, তাঁর গাড়ির চালককে নিগ্রহ করে স্থানীয় লোকজন। সেই প্রশাসনিক কর্তা জানান, এই চাষি বেআইনিভাবে রাস্তায় বসে ব্যবসা করছিলেন। কিন্তু তাঁকে সতর্ক করা যেত, জরিমানা করা যেত, ভয় দেখানো যেত। কিন্তু যে দেশের অধিকাংশ মানু্য দু’‌বেলা পেট ভরে খেতে পায় না, সেখানে চাষির ফসল এভাবে নষ্ট করে দেওয়া কী উচিত?‌ 
স্থানীয় সূত্রে খবর, দিল্লি থেকে ৭৩ কিলোমিটার দূরে হাপুর জেলায় সরকারি সবজি মান্ডির ঘটনা। সুশীল কুমার নামে এক প্রশাসনিক কর্তার দিকে অভিযোগ তির। তাঁরই গাড়ি সেই চাষির সমস্ত সবজি থেঁতলে দিয়েছে বলে অভিযোগ। ভিডিও–তে দেখা যাচ্ছে, চাষির সব সবজি পিষে দিচ্ছে সরকারি গাড়ি। ওই গাড়িতে ছিলেন সুশীল কুমার নামের এক সরকারি আধিকারিক। যিনি ওই বাজারের সচিব। তবে তিনি গাড়িটি চালাচ্ছিলেন না। তাঁর গাড়ির চালক যখন ওই কাণ্ড করছে তখন তিনি কাছাকাছিই ছিলেন বলেবাসিন্দারা জানাচ্ছেন। 
সুশীল কুমারের দাবি, ওই চাষি দীর্ঘদিন ধরে রাস্তায় বসে বেআইনিভাবে ব্যবসা করেন। তিনি বারবার নিষেধ করা সত্ত্বেও সেই চাষি কথা শোনেননি। চাষিকে বাজারে দোকান নিতে বলা হয়েছিল। কিন্তু তিনি আবেদন করেননি। এই ভিডিও নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে তীব্র সমালোচনা। এভাবে এক কৃষকের সবজিকে পিষে দেওয়ার অমানবিক কাণ্ডের নিন্দায় মুখর নেটিজেনরা।

জনপ্রিয়

Back To Top