আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ চলন্ত বাসে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল স্বামীর। স্বামী সহ স্ত্রীকে বাস থেকে ধাক্কা মেরে নামিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল বাস কন্ডাক্টর ও চালকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বাহরাইচ থেকে লখনউ যাওয়ার পথে রামনগরের কাছাকাছি এলাকায়। কিরণ দ্বীপ নামে এক ব্যক্তি নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে গোটা ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে উদ্দেশ্য করে জানানোর পরেই বিষয়টি সামনে এসে। সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটে। বরবনকি এলাকার কাছে বাসটি পৌঁছতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হন রাজু মিশ্র নামে ৩৭ বছর বয়সি এক ব্যক্তি। চিকিৎসার কোনওরকম ব্যবস্থা করার আগেই মৃত্যু হয় তাঁর। রাজু মিশ্রর দাদা মুরলী মিশ্র সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, ‘‌ঘটনাটির পরে আমার ভাই ও বৌদিকে বাস থেকে নামতে বাধ্য করে বাসের কন্ডাক্টর মহম্মদ সালমান ও বাসের ড্রাইভার জুনাইদ আহমেদ।’‌ 
যদিও এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করে কন্ডাক্টর জানিয়েছেন, ‘‌বাসে একজন চিকিৎসকও ছিলেন। কিন্তু তিনিও পারেননি রাজু মিশ্রকে বাঁচাতে। কাছাকাছি একজন চিকিৎসকের খোঁজ দিয়ে তিনি সেখানে নিয়েও যেতে চেয়েছিলেন। রাম নগরের কাছে আমরা বাস থামিয়ে ওই এলাকার ডি পি সিং নামে এক চিকিৎসককে ফোন করে ডাকি। যদিও বাসেই মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির। আমরা ইউপি পুলিশকেও ফোন করে জানিয়েছিলেন গোটা বিষয়টা। যদিও কোনও উত্তর আমরা পাইনি। এমনকি মৃতের পরিবারের লোকজনকেও খবর দিয়েছিলাম।’‌ 
রামনগর পুলিশের সুপারিনটেন্ডেন্ট শ্যাম নারায়ণ পান্ডে জানিয়েছেন, ‘‌বাসের কন্ডাক্টর আমাদের ফোন করে গোটা বিষয়টা জানিয়েছিলেন। আমরা সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। মৃতকে বরবনকি হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থাও করেছি আমরা।’‌ পরিবহন দপ্তরের আধিকারিক মহম্মদ ইরফান সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, ‘‌সোশ্যাল মিডিয়া থেকে আমি ঘটনাটি জানতে পারি। ঘটনাটির অবশ্যই তদন্ত হবে।  ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top