আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌পণ নেওয়ার জন্য স্ত্রীর ওপর অকথ্য অত্যাচার করল স্বামী। জানা গিয়েছে,  বেল্ট দিয়ে বেধড়ক পেটানোর পর স্ত্রীকে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। অত্যাচারের এই ভিডিও মোবাইলে ভিডিও করে তা পাঠানো হয় স্ত্রীর ভাইয়ের কাছে। ওই ব্যক্তি রীতিমতো হুমকি দিয়ে জানায়, তার দাবি না মেটালে স্ত্রীর ওপর অত্যাচার বাড়বে। উত্তরপ্রদেশের শাহাজাহানপুর জেলায় এই ঘটনাটি ঘটে বলে জানা গিয়েছে। ওই ব্যক্তি তার স্ত্রীর পরিবারের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা পণ চায়। মেয়ের পরিবার তা দিতে অস্বীকার করায় ওই ব্যক্তি তার স্ত্রীকে মারধর শুরু করে। স্ত্রী অচৈতন্য না হওয়া পর্যন্ত চলে অত্যাচার। 
নির্যাতিতা ওই মহিলা জানান, তাঁর স্বামী তাঁকে বেল্ট দিয়ে পেটায় এবং তিনি অচৈতন্য হয়ে পড়লে তাঁকে তাঁরই ওড়না দিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। মহিলা বলেন, ‘‌আমার ওপর প্রায় ৩–৪ ঘণ্টা ধরে নির্যাতন চলে। তারপর আমি অজ্ঞান হয়ে যাই। যখন জ্ঞান ফেরে তখন আমার দু’‌টো হাতই সিলিং ফ্যানের সঙ্গে বাঁধা ছিল।’‌ মহিলা আরও বলেন, ‘‌আমি শিক্ষিত নই আর তাই আজ আমার এই পরিনতি। আমার জীবনটা শেষ হয়ে গিয়েছে।’‌ মহিলার স্বামী এবং পরিবারের আরও ৪ সদস্যের বিরুদ্ধে পণ এবং মহিলাকে অত্যাচার করার জন্য অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। যদিও গ্রেপ্তারের আগেই ফেরার হয়ে যায় মহিলার স্বামী এবং তার পরিবারের সদস্যরা। অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিস।

 

 

এভাবেই ঝুলিয়ে রাখা হয়েছিল মহিলাকে।   


‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top