আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ যত কাণ্ড যেন উন্নাওয়ে। শুক্রবার রাতে উন্নাওয়ের নির্যাতিতা তরুণী দিল্লির হাসপাতালে হৃদরোগে মারা গেছেন। আদালতে যাওয়ার সময় ধর্ষকরা নির্যাতিতার গায়ে আগুন লাগিয়ে দিয়েছিল। সেই অবস্থাতেই প্রায় ১ কিলোমিটার দৌড়ে দিয়ে পুলিশকে খবর দেন ওই তরুণী। এরপর পুলিশই ওই তরুণীকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে দিল্লিতে স্থানান্তরিত করা হয়। সেখানেই শুক্রবার রাত ১১.‌৪০ নাগাদ মারা যান তরুণী। গোটা দেশ শোকস্তব্ধ। এরই মধ্যে ফের উন্নাওয়ে যৌন নির্যাতনের ঘটনা প্রকাশ্যে এল। ৩ বছরের এক শিশুকন্যাকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে এক নাবালকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উন্নাওয়ের মাখি গ্রামে। পুলিশ অভিযুক্ত নাবালককে গ্রেপ্তার করেছে। 
জানা গেছে ঘটনার দিন বাড়ির সামনে মাঠের মধ্যে খেলছিল শিশুকন্যাটি। তাঁকে একা দেখতে পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে প্রতিবেশী নাবালক। শিশুকন্যার কান্নার আওয়াজ শুনতে পেয়ে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। ভিড় দেখে অভিযুক্ত পালাতে যায়। কিন্তু স্থানীয়দের হাতে ধরা পড়ে যায় নাবালক। এরপর তাকে মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শিশুকন্যার মেডিকেল টেস্টের পরেই পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করবে পুলিশ। 
মহিলাদের নিরাপত্তা দিতে উত্তরপ্রদেশ সরকার ব্যর্থ। যখন যোগী সরকারের সমালোচনা চলছে, তখনই এই ঘটনা প্রকাশ্যে এল। এদিকে মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথ আবার উন্নাওয়ের নির্যাতিতা তরুণীর মৃত্যুর খবরে শোকপ্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘‌মহিলার মৃত্যুর খবর শুনে অত্যন্ত দুঃখিত। আদালতে এই ঘটনার দ্রুত নিষ্পত্তি করা হবে। অভিযুক্তদের কড়া শাস্তি দেওয়া হবে।’‌ 
 

জনপ্রিয়

Back To Top