আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‘হেড অফিসের বড়বাবু লোকটি বড় শান্ত, তাঁর যে এমন মাথার ব্যামো কেউ কখনও জানত?’-মাথার ব্যামো কি না তা এখনও জানা যায়নি। তবে গোঁফ চুরি নিয়ে অনেক কথা সুকুমার রায় লিখে গেলেও, বাস চুরির বিষয়টি হয়ত তাঁর কল্পনাতেও আসেনি। তাই কিছুই লেখেননি সে বিষয়ে। সব নিশ্চয় তালগোল পাকিয়ে যাচ্ছে আপনাদের। মাথার ব্যামো না অন্য কোনও সমস্যা তা এখনও ধরতে পারেনি তেলঙ্গানা পুলিশ। কারণ আস্ত একটা যাত্রীবোঝাই বাস চুরি হয়ে গিয়েছিল সেখানে। 
তেলঙ্গানা পরিবহণ দপ্তর জানিয়েছে, রবিবার ১৬ই ফেব্রুয়ারি রাতে রাজ্যের সরকারি পরিবহনের একটি বাস কয়েকজন যাত্রী নিয়ে তেলঙ্গানার কারানকোট থেকে ওদিপুরে যাচ্ছিল। রাত সাড়ে ৯টা নাগাদ ভিকারাবাদের একটি জায়গায় বাসটি থামিয়ে রাস্তার পাশে থাকা একটি হোটেলে রাতের খাবার খেতে যান চালক ও তাঁর সহকারী। এ পর্যন্ত সব ঠিক থাকলেও, তাঁরা খেয়ে ফিরে এসে দেখেন বাসটি আর সে জায়গায় নেই!
কিছুক্ষণ খোঁজাখুঁজির পরে তাঁরা বোঝেন বাসটি চুরি হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে ডিপো ম্যানেজার রাজাশেখরকে ফোন করে ঘটনাটি বলেন তাঁরা। পাশাপাশি পুলিশকে ফোন করে বাসটি চুরি হওয়ার কথাও জানান। এরপর ডিপো ম্যানেজারও বেশ কিছুটা ভয় পেয়ে যান। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যেই তাঁর কাছে এক যাত্রী ফোন করে জানান মালাপ্পা পেরোনোর সময় তাঁদের বাস একটি লরিকে ধাক্কা মারে, তারপরই চালক পালিয়ে যান। পরে ওই বাসে থাকা যাত্রীরা জানান, প্রথমে বাসটিতে একজন চালক ও কন্ডাক্টর ছিলেন। একটা জায়গায় বাসটি থামিয়ে তারা খেতে যান। কিছুক্ষণ পর অন্য একজন এসে চালকের আসনে বসে আচমকা বাসটি চালাতে শুরু করেন। দ্বিতীয় চালককে দেখে তাঁদের মনে হচ্ছিল সে মদ্যপান করেছে। বাসের যাত্রীরা তাকে কন্ডাক্টরের কথা জিজ্ঞাসা করেন। এর উত্তরে ওই ব্যক্তি জানায়, চালক ও কন্ডাক্টরের ভূমিকা সে একাই পালন করবে! বাসটি চালাতে শুরু করার কিছুক্ষণ বাদে আচমকা একটি লরিতে ধাক্কা মারে ওই ব্যক্তি। তারপর লরির চালক ও স্থানীয়রা তাকে মারধর করবে এই ভয়ে বাস ছেড়ে পালায়। পরিস্থিতি দেখে স্থানীয় থানায় খবর দেন বাসটিতে থাকা যাত্রীরা। পরে পরিবহণ দপ্তরের পক্ষ থেকে অন্য চালক পাঠিয়ে ওই বাসটিকে যাত্রীসহ ডিপোতে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।
আপাতত এ বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। অজ্ঞাত পরিচয়ের ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে তেলঙ্গানা পরিবহন দপ্তর। অভিযুক্তকে ধরতে বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি চালানো হচ্ছে। এখন দেখার যে বা যাঁরা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তাঁদের আদৌ মাথার কোনও ব্যামো আছে না কি নিছকই মজা করতে এমন একটি কাণ্ড ঘটিয়েছেন তাঁরা।

জনপ্রিয়

Back To Top