‌সংবাদ সংস্থা, মুম্বই: আমেদাবাদে ‘‌নমস্তে’‌, আর দিল্লি জ্বলছে। মনে পড়িয়ে দিচ্ছে ১৯৮৪ সালের শিখ দাঙ্গার কথা। দিল্লি হিংসা নিয়ে মোদি সরকারকে কাঠগড়ায় তুলে এই মন্তব্য করল শিবসেনা। দলের মত, ‘‌আগে কখনও দিল্লির এত অপমান হয়নি।’‌
দলীয় মুখপত্র সামনা–‌য় শিবসেনা লিখেছে, ‘‌মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন দিল্লি পরিদর্শন করছিলেন, তখন অবাধে হিংসা চলছে রাজধানীতে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যখন আলোচনা করছিলেন তখন দিল্লি জ্বলছে। কেন্দ্র রাজধানীর আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ব্যর্থ। ১৯৮৪ সালের শিখ–‌বিরোধী দাঙ্গা নিয়ে বিজেপি এখনও পর্যন্ত কংগ্রেসকে দোষারোপ করে। ইন্দিরা গান্ধী নিহত হওয়ার পর দিল্লিতে শিখদের নিশানা করা হয়েছিল। কয়েকশো শিখকে হত্যা করা হয়েছিল। দিল্লিতে এখন আবার সেই রকম হিংসা ছড়িয়েছে। মানুষ লাঠি, তলোয়ার, রিভলভার নিয়ে রাস্তায় নেমে পড়েছে। দিল্লির দৃশ্য শিউরে ওঠার মতো। এর দায় কার?‌ অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির মধ্যেই দিল্লি এলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আমাদের পক্ষে এটা ভাল নয়।’‌ 
শিবসেনার প্রশ্ন, ‘‌তাঁর (‌ট্রাম্পের)‌ সামনে আমরা কী উপস্থাপন করলাম?‌ আমেদাবাদে নমস্তে আর দিল্লিতে হিংসা। আগে কখনও দিল্লির এত অপমান হয়নি। ক্ষমতা আর সবরকম সরঞ্জাম থাকা সত্ত্বেও দিল্লির সঙ্ঘর্ষ বন্ধ করা গেল না কেন, সেটাই সবচেয়ে বড় প্রশ্ন। অত্যন্ত সাহসের সঙ্গে ৩৭০ ধারা ও ৩৫এ ধারা রদ করা হয়েছে। দিল্লির সঙ্ঘর্ষ থামানোর জন্য সেই সাহস দেখানো উচিত ছিল।’‌ শিবসেনা আরও বলেছে, ‘‌বিজেপি–‌র কয়েকজন নেতা হুমকির ভাষায় কথা বলার পরই হিংসা ছড়িয়েছে। তাহলে কি কেউ শান্তিপূর্ণ আন্দোলন (‌শাহিনবাগ)‌–‌কে হিংসাত্মক করে তুলতে চাইছিলেন? ট্রাম্প ফিরে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারতেন তাঁরা। দিল্লির বিধানসভা ভোটে বিজেপি পরাজিত হওয়ার পরই সঙ্ঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ল। এটাও সন্দেহজনক।’‌
ভারত–মার্কিন প্রতিরক্ষা চুক্তি নিয়েও কটাক্ষ করেছে শিবসেনা। উদ্ধব ঠাকরের দল বলেছে, ‘‌ট্রাম্প তাঁর ভাষণে পাকিস্তানকে সন্ত্রাসবাদ নির্মূল করতে বলেছেন। আবার পাকিস্তানের সঙ্গে লড়াইয়ের জন্য ভারতকে মারাত্মক শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করবেন। আসল কথা ব্যবসা। তার জন্য আমাদের কয়েকশো কোটি ডলার গুনতে হবে। ট্রাম্প কমপক্ষে ২৫ বার মোদির প্রশংসা করেছেন, একজন অন্যজনকে বুকে জড়িয়ে ধরেছেন। আর ২৫ বার আলিঙ্গনের মূল্য আমাদের তিনশো কোটি ডলার গুনতে হবে।’‌‌‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top