আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গো–পর্বে এবার নতুন সংযোজন করলেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত। পুনেতে গো–সেবা পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখানেই সংবাদসংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছেন, জেলের মধ্যে যে বন্দিরা গো–পালন করে, তাতে অপরাধীদের মধ্যে অপরাধ প্রবণতা কমে যায়। মোহন ভাগবতের এই নয়া তথ্যে এখন অট্টহাস্য করছেন নেটিজেনরা। অনেকেই বলেছেন, এটা গরুর দুধে সোনা পাওয়ার মতো ঘটনা। 
তবে তিনি শুধু এই নয়া তথ্য দিয়েই ক্ষান্ত হননি। প্রমাণও পেশ করেছেন। তিনি জানান, তিনি জেনেছেন যে বন্দিদের দিয়ে জেলে গো–পালন করানো হয়েছে। আর মুক্তি পাওয়ার পর তাদের অনেকেই আর কোনও অপরাধ করেনি। জীবনের মূল স্রোতে ফিরে গিয়েছে। দেশের বিভিন্ন জেলের জেলারদের সঙ্গে কথা বলে তিনি এই তথ্য পেয়েছেন। ফলে জেলেই এবার গো–শালা খোলা উচিত বলে তিনি মনে করেন। 
সঙ্ঘ অনুগামীরা অবশ্য বলছেন, এতে কটাক্ষ করার কিছু নেই। গরু নিরীহ গৃহপালিত পশু। গো–পালন করার মধ্যে যে শুদ্ধতা ও পবিত্রতা রয়েছে, তাতে মনের ভাবের পরিবর্তন হয়। সৎসঙ্গে থেকে মানুষ যেমন ভাল হয়। ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে দেশ এখন উত্তাল। সেই প্রেক্ষাপটেই অপরাধ প্রবণতার প্রসঙ্গ তুলেছেন মোহন ভাগবত। যদিও আগে একটি অনুষ্ঠানে ধর্ষণের ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেছিলেন, এই ধরনের অপরাধের ক্ষেত্রে সহিষ্ণুতা দেখানোর কোনও প্রশ্নই নেই। সমাজের সব মহিলাকে মর্যাদা দিতে হবে, তাঁরাই মাতৃশক্তি। 
উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভোপালের বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা বলেছিলেন, গরুর লেজে হাত বোলালে অনেক রোগ সেরে যায়। আবার বাংলার বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, গরুর দুধে সোনা থাকে। আবার উত্তরপ্রদেশ সরকার তো গরুর কল্যাণের জন্য পৃথক দপ্তরও তৈরি করেছে। শীতে যাতে গরুদের ঠাণ্ডা না লাগে তার জন্য তাদের শীতবস্ত্রও দেওয়া হয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top