আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গোটা দেশে ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলেছে। এবার জোর করে পর্নোগ্রাফি দেখানোর পর এক সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে। দু’‌জনেই পলাতক। 
মহারাষ্ট্রের মারাঠওয়াড়া এলাকার নান্দেদ জেলায় ঘটনাটি ঘটে। অভিযোগ, দুই শিক্ষক জোর করে এক সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে পর্নোগ্রাফি দেখানোর পর একটি ঘরে বন্ধ রেখে গণধর্ষণ করেছে। ঘটনাটি ঘটে প্রায় সাতমাস আগে। কিন্তু নাবালিকার বাবার অভিযোগ নিতে চায়নি পুলিশ। অবশেষে ১৮ জানুয়ারি ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। নাবালিকার বাবা জানিয়েছেন, দুই অভিযুক্ত শিক্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ভিডিও দেখাবে বলে তাঁর নাবালিকা মেয়েকে একটি ঘরে নিয়ে যায়। এরপর জোর করে পর্নোগ্রাফি দেখায়। তারপর ধর্ষণ করে। 
বেঙ্গালুরুতেও কিছুদিন আগে এক নাবালিকার উপর যৌন অত্যাচারের অভিযোগ উঠেছিল। অভিযুক্ত ব্যক্তি ৯ বছরের নাবালিকার বাড়ির বাথরুমের জানলা ভেঙে সকাল সাড়ে চারটে নাগাদ বাড়িতে ঢুকে পড়ে। এরপর নাবালিকাকে ধর্ষণ করতে যায়। কিন্তু নাবালিকার চিৎকারে অভিযুক্ত পালায়। কিছুদিন আগে মুম্বইয়ে এক বাস কন্ডাক্টরের যৌন হেনস্থার শিকার হন মানসিক প্রতিবন্ধী দুই নাবালিকা ছাত্রী। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top