আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর হত্যাকাণ্ডে তাঁর কোনও হাত নেই এমনই দাবি করেছেন নলিনী শ্রীহরণ। শনিবার থেকে ভেলোর জেলে নিজের এবং সাত দোষীর মুক্তির দাবিতে অনশন শুরু করেছেন নলিনী। এই একই দাবিতে গত আটদিন ধরে একই জেলে অনশন করছেন রাজীব গান্ধী হত্যাকাণ্ডে অন্যতম দোষী মুরুগানও। নলিনীর স্বামী মুরুগান। স্বামীর এই আন্দোলনে এবার সামিল হয়েছেন নলিনীও। 
এর আগে তামিলনাড়ুর রাজ্যপাল বনওয়ারিলাল পুরোহিতের কাছে চিঠি লিখে নলিনী এই মামলায় দোষী সাব্যস্তদের মুক্তি দিতে দেরী হওয়ার জন্য ক্ষোভ জানিয়েছিলেন। রাজ্যপাল সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করছেন বলেই আমরণ অনশনে বসতে তাঁরা বাধ্য হয়েছেন বলে জানিয়েছেন নলিনী।

২৮ বছর সাজা কাটার পরেও তাঁদের মুক্তি দেওয়া হচ্ছে না কেন এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নলিনী। নিজেদের নির্দোষ প্রমাণে লাই ডিটেক্টর টেস্ট দিতেও সকলে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন। নলিনীর দাবি যাঁদের এই মামলায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে সকলেই পরিস্থিতির স্বীকার। 
গত ৯ সেপ্টেম্বর তামিলনাড়ুর সরকার রাজীব গান্ধী হত্যাকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত সাতজনকে মুক্তির নির্দেশ দিয়েছিল। সংবিধানের ১৬১ নং ধারা মেনেই তাঁদের মুক্তির সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছিল। এঁদের মধ্যে ছিলেন নলিনী শ্রীহরণ, মুরুগান, সন্থান, এসি পেরারিভেলন, রবার্ট পেয়াস, এস জয়কুমার, রবিচন্দ্রণ। প্রায় ২৭ বছরেরও বেশি সময় ধরে তাঁরা জেলে রয়েছেন। 

জনপ্রিয়

Back To Top