আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আর মাত্র ১০ বছর। ২০৩০–এ রেলের যাত্রা হবে আরও আরামদায়ক। ওই সময়ের মধ্যেই কার্বন নিঃসরণ শূন্য করার সিদ্ধান্ত নিল ভারতীয় রেল। ‘‌সবুজ’‌ হওয়ার জন্য বেশ কিছু পদক্ষেপ করছে রেল। যেমন সমস্ত ব্রডগেজ লাইনে বিদ্যুৎ সংযোগ আনা হবে। ফলে জ্বালানী পুড়িয়ে আর ধোঁয়া ছাড়বে না ট্রেন। পুনর্ব্যবহারযোগ্য শক্তির ওপরেই ভরসা রাখা হবে। সোমবার জানিয়ে দিল ভারতীয় রেল।
বিবৃতি দিয়ে আরও জানাল, ট্রেনের প্রতি কামরায় বায়ো–টয়লেটের ব্যবস্থা করা হবে। স্টেশনগুলোকেও দূষণমুক্ত করার ব্যবস্থা হবে। বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই ৪০ হাজার রুট কিলোমিটার ব্রডগেজ লাইনে বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেশে মোটা ব্রডগেজ লাইনের ৬০ শতাংশতেই এখন চলবে বিদ্যুৎবাহী ট্রেন। ২০১৪ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে বিদ্যুৎ আনা হয়েছে ১৮,৬০৫ কিলোমিটারে। যেখানে ২০০৯ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত মাত্র ৩,৮৩৫ কিলোমিটার লাইনে বিদ্যুৎ সংযোগের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। 
বিবৃতিতে বলা হয়েছে, এই করোনা পরিস্থিতিতেও ব্রডগেজ লাইনে বিদ্যুৎ আনার কাজ থামেনি। এই সময়কালে ৩৬৫ কিলোমিটার লাইনে বিদ্যুৎ সংযোগ করা হয়েছে। সৌরশক্তি ব্যবহারের ওপরও জোর দিচ্ছে ভারতীয় রেল। এখন পর্যন্ত ৯০০ স্টেশনের মাথায় সৌর প্যানেল বসিয়ে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করছে রেল। ৪০০ মেগাওয়াট শক্তি উৎপাদনকারী সৌর প্যানেল বসানোর কাজ চলছে। এর পর বেশ কিছু ট্রেনও সৌরশক্তিতে চালানোর চিন্তাভাবনা চলছে। সবুজ–অভিযানে এখন পর্যন্ত ৬৯ হাজার কামরায় ২,৪৪,০০০ বায়ো–টয়লেট বসানো হয়েছে। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top