আজকালের প্রতিবেদন, দিল্লি, ১৩ আগস্ট- উত্তরপ্রদেশের মাটি আঁকড়ে ধরেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। গত মাসে সোনভদ্রে যেতে দেওয়া হয়নি তাঁকে। মির্জাপুরে আটক করেছিল যোগী আদিত্যনাথের পুলিশ। স্থানীয় চুনার দুর্গে প্রিয়াঙ্কার রাত্রিবাস শোরগোল ফেলেছিল। ফেরার আগে আবারও সোনভদ্রে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছিলেন। সে–কথা রাখলেন। আর সোনভদ্রে পৌঁছে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে জম্মু–কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ ও রাজ্য ভেঙে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা করেছেন তিনি। নরেন্দ্র মোদি সরকারের এই পদক্ষেপকে ‘‌অসাংবিধানিক’‌ আখ্যা দিয়েছেন। এই বিষয়ে এই প্রথম মুখ খুললেন প্রিয়াঙ্কা। তিনি বলেছেন, ‘‌যে পদ্ধতিতে এই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়েছে, তা অসাংবিধানিক। গণতন্ত্রের নীতি–নিয়মের পরিপন্থী। এমন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত করতে হলে কিছু গণতান্ত্রিক নিয়ম মানতে হয়। তা মানেনি কেন্দ্রীয় সরকার।’‌
মঙ্গলবার কাদামাখা পথ ডিঙিয়ে, খেতের আল মাড়িয়ে উম্ভা গ্রামে পৌঁছলেন কংগ্রেস সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা। তাঁকে স্বাগত জানাতে অনেকটা পথ এগিয়ে এসেছিলেন গ্রামের মহিলারা। তাঁদের হাত ধরেই গ্রামে প্রবেশ করলেন প্রিয়াঙ্কা। নিপীড়িত গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলেছেন তিনি। মহিলাদের সঙ্গে অনেকটা সময় কাটিয়েছেন। বারাণসী বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানাতে এসেছিলেন অনেকে। তারপর সোনভদ্রের দিকে যত এগিয়েছেন, স্বাগত জানাতে ঢল নেমেছে মানুষের।

সোনভদ্রে আল ধরে প্রিয়াঙ্কা। ছবি: পিটিআই

জনপ্রিয়

Back To Top