‌আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অন্ধ্রপ্রদেশে সভা করতে গিয়ে বিরোধীদের তুমুল বিক্ষোভের মুখে পড়লেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রধানমন্ত্রীর সফরের বিরোধিতা করে রাজ্যে পোস্টার দেয় বিরোধীরা। পাশাপাশি বাম, কংগ্রেস এবং টিডিপি রাস্তায় নেমে বিক্ষোভও দেখায়। এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে তেলুগু দেশম পার্টি ও চন্দ্রবাবু নাইডুকে তীব্র আক্রমণ করলেন নরেন্দ্র মোদি।
গত বছর এনডিএ ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার পর এই প্রথম অন্ধ্রপ্রদেশে এলেন প্রধানমন্ত্রী। সেই শরিক হারানোর বেদনা এখনও অটুট। রবিবার বিজয়ওয়াড়ার গুন্নাভারম বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে রাজ্যের কোনও মন্ত্রী স্বাগত জানাতে আসেননি। পরিবর্তে পাঠানো হয় রাজ্যের মুখ্যসচিব এবং পুলিস প্রধানকে। এদিন তাঁর দুটি সভা করার কথা রয়েছে। গুন্টুরের সভায় সরাসরি চন্দ্রবাবুকে নিশানা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‌রাজ্যে সানরাইজের কথা বলেছিলেন চন্দ্রবাবু। কিন্তু তাঁর সময় কেটেছে নিজের সন–কে রাইজ করতেই। উনি রাজ্যের মানুষদের জন্য নতুন নতুন প্রকল্প ঘোষণার কথা বলেছিলেন। কিন্তু এখন উনি মোদির প্রকল্পতেই নিজের স্টিকার লাগিয়ে দিচ্ছেন।’‌ অর্থাৎ চন্দ্রবাবু নিজের ছেলেকে দাঁড় করাতে রাজ্যকে অবহেলা করেছেন বলে অভিযোগ তুললেন প্রধানমন্ত্রী। 
অন্যদিকে চন্দ্রবাবুর রাজনৈতিক নীতি নিয়েও কটাক্ষ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‌আপনি দল বদল করার ক্ষেত্রে সবার সিনিয়র। নতুন নতুন দলের সঙ্গে জোট বাঁধার ক্ষেত্রে আপনি অগ্রজ। নিজের শ্বশুরের পিঠে আপনি পিছন থেকে ছুরি মেরেছেন। এক্ষেত্রেও আপনি সবার অগ্রজ।’‌ উল্লেখ্য, কংগ্রেসের ছাত্রনেতা হিসেবে কেরিয়ার শুরু করেন চন্দ্রবাবু। ১৯৮৩ সালে কংগ্রেস থেকে এনটি রামা রাওয়ের টিডিপিতে যোগ দেন। ক্রমশ দলের প্রধান হয়ে ওঠেন। বিয়ে করেন এনটি রামা রাওয়ের মেয়ে ভুবনেশ্বরীকে। এদিন যেন সেই ইতিহাসকে স্মরণ করিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। 

জনপ্রিয়

Back To Top