আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ গত তিনদিন ধরে জ্বলছে রাজধানী দিল্লি। ইতিমধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৪ জনের। আতঙ্কে রাজধানী ছাড়ছেন অনেকেই। ঘর–বাড়ি–গাড়ি জ্বলছে। চারিদিকে শুধু হিংসার ছবি। কিন্তু এই ঘটনায় তিনদিন পর মুখ খুললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কারণ তিনি তখন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে আলাপচারিতায় ব্যস্ত। কোটি টাকার চুক্তি করতে ব্যস্ত। আর তাই তো ট্রাম্প ফিরতেই যেন রাজধানী দিল্লির কথা খেয়াল পড়ল প্রধানমন্ত্রী। বুধবার এল কাঙ্খিত টুইটটি। যেখানে তিনি শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানালেন। এ দিন টুইটারে মোদি লিখলেন, ‘‌শান্তি ও সম্প্রীতি আমাদের মূল ভিত্তি৷ দিল্লির ভাই–বোনেদের কাছে আমার আবেদন, শান্তি ও ভাতৃত্ব বজায় রাখুন৷ যত দ্রুত সম্ভব শান্তি ও স্বাভাবিক অবস্থা ফেরানো খুব জরুরি৷’‌ পরে আরো একটি টুইটে তিনি লিখছেন, ‘‌দিল্লির সব এলাকার পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা হয়েছে৷ শান্তি ও স্বাভাবিক পরিস্থিতি আনতে পুলিশ ও অন্যান্য সংস্থা ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ করছে৷’‌ ইতিমধ্যেই দিল্লির হিংসায় ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ দিল্লিতে পৌঁছে গিয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল৷ উত্তর–পূর্ব দিল্লির বিস্তীর্ণ এলাকায় ১৪৪ ধারা চলছে। ভজনপুরা, খাজুরিখাস, মৌজপুর, বিজয় পার্ক, যমুনা বিহার, গামরি, করদমপুরি, উত্তর-পূর্ব দিল্লির একের পর এক জায়গায় অশান্তি৷

জনপ্রিয়

Back To Top