আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌ওড়িশায় অবস্থিত পুরীর পবিত্র জগন্নাথ মন্দিরে প্রবেশ করলেন শতাধিক পাকিস্তানি। দেশভাগের ৭০ বছরের ইতিহাসে যা কার্যত নজিরবিহীন।
পাকিস্তান থেকে ১০০ জনেরও বেশি তীর্থযাত্রীর দল ভারতে এসেছেন। চলতি মাসের চার তারিখ থেকে তাঁদের পাঁচ দিনের সফর শুরু হয়েছে। রবিবার ছিল সেই সফরের চতুর্থ দিন।এই চতুর্থ দিনে তাঁরা ওড়িশায় আসেন। সেখানকার বিখ্যাত পুরীর জগন্নাথ মন্দির দর্শন করেন তাঁরা। তাঁদের এই সফরের জন্য ভারত সরকার এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছিল। ভিসা প্রদানের ক্ষেত্রেও তাঁদের বিশেষ সুবিধা দেওয়া হয়েছিল।
রবিবার সন্ধ্যায় পুরী শহরেই মন্দিরের অদূরে তাঁদের বিশেষ সম্বর্ধনা দেওয়া হয়। এক তীর্থ যাত্রী আত্মারাম বলেছেন, ‘‌আমি এর আগে অনেকবার ভারতে এসেছি। কিন্তু জগন্নাথ মন্দিরে এই প্রথমবার এলাম। এক অসাধারণ অনুভূতি নিয়ে ফিরব।’‌ একই অভিজ্ঞতা অপর তীর্থযাত্রী রমেশের। করাচির বাসিন্দা ওই ব্যক্তি নিজের শহরেই একটা বড় জগন্নাথ মন্দির গড়তে চান। তাঁর কথায়, ‘‌প্রতি বছর করাচিতে বড়ো করে জগন্নাথ দেবের রথযাত্রা উদযাপন করা হয়। প্রায় ১২০০ মানুষ সেই শোভাযাত্রায় অংশ নিয়ে থাকেন।’‌ একই সঙ্গে তিনি আরও জানান, ‘‌করাচির রথযাত্রায় স্থানীয় প্রশাসন খুব সহযোগিতা করে। এখন আমরা একটা বড় জগন্নাথ মন্দির করার কথা ভাবছি।’‌ হিন্দু হিসেবে পাকিস্তানের জীবনযাত্রার কথা বর্ণনা করতে গিয়ে রমেশবাবু বলেন, ‘‌আমরা পাকিস্তানে খুব ভালো আছি। ধর্মচারণে কোনও সমস্যা নেই। সকল ধর্মীয় অনুষ্ঠান আমরা সাড়ম্বরে উদযাপন করে থাকি।’‌ পাকিস্থানে থাকা হিন্দু তীর্থযাত্রীদের ভিসার জন্য ভারত সরকারের বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন করেছেন তিনি।

জনপ্রিয়

Back To Top