আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে তাঁর প্রেমিকা রিয়ার দিকে আঙুল তুলেছেন বাবা কেকে সিং। তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর–ও করেছেন পাটনায়। সেই তদন্ত করতেই তিন দিন আগে মুম্বই গেছে পাটনা পুলিশ। মূলত রিয়ার বিরুদ্ধে যাঁরা মুখ খুলেছেন, তাঁদের জেরা করা হচ্ছে। আর সুশান্তের ব্যাঙ্ক, ব্যবসায়িক লেনদেন নিয়ে তদন্ত চালাচ্ছে পাটনা পুলিশ। 
আর এই কাজেই নামী–দামি গাড়িতে চেপে রোজ যাচ্ছে তারা। কখনও বিএমডব্লিউ, কখনও জাগুয়ার। দেখে ইতিমধ্যেই কানাঘুষো শুরু হয়েছে। মুখ টিপে হাসছে মুম্বই পুলিশও। এমনিতে পাটনা পুলিশকে তারা সহায়তা করছে না বলে অভিযোগ উঠছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দুই রাজ্যের পুলিশ আসলে দুই রাজনৈতিক দলের ‘‌প্রতিনিধি’‌ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সুশান্ত–মামলা ঘিরে স্বাভাবিকভাবেই তাই পাটনা আর মুম্বই পুলিশের বিভিন্ন বিষয়ে বিরোধ বাড়ছে। 
বৃহস্পতিবার পাটনা পুলিশ বান্দ্রার কোটাক মাহিন্দ্রা ব্যাঙ্কের শাখায় গেছিল। সেখানেই অ্যাকাউন্ট ছিল সুশান্তের। সাদা বিএমডব্লিউতে চেপে ব্যাঙ্কে যায় পাটনা পুলিশ। নিমেষে ভাইরাল হয় সেই ছবি আর ভিডিও। অঙ্কিতার বাড়ি থেকে ফেরার সময় তাই আর গাড়িতে চাপেনি পুলিশ। অটোয় উঠে পড়েছে।
সেই দিন সন্ধেবেলায় সুশান্তের প্রাক্তন প্রেমিকা অঙ্কিতা লোখণ্ডের বাড়িতে জেরা করতে যায় পাটনা পুলিশ। জাগুয়ারে চেপে। বুধবার মুম্বই পুলিশের অপরাধ দমন শাখার বড় কর্তাদের সঙ্গে দেখা করতে যায় পাটনা পুলিশ। বৈঠক ইতিবাচক হয়নি বলে শোনা গেছে। তবে গোটা দেশের সংবাদ মাধ্যমের নজর ছিল ওই বৈঠকে। সেদিন অবশ্য আর দামি গাড়িতে চাপেনি। বাইকে চেপে গেছিল পাটনা পুলিশ।    
 

জনপ্রিয়

Back To Top