আজকাল ওয়েবজেস্ক:‌ ‌প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিদেশ ভ্রমণ নিয়ে বিরোধীরা বারেবারেই খোঁচা দিয়ে এসেছে। তার বেশকিছু কারণও রয়েছে। গত তিন বছরে প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরে শুধু চার্টাড বিমানের খরচই ২৫৫ কোটি। এছাড়া অন্যান্য খরচ তো রয়েছেই। রাজ্যসভায় এই তথ্য দিয়েছে খোদ মোদি সরকারের বিদেশমন্ত্রক। যা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের বিদেশ সফরের খরচের তুলনায় অনেকটাই বেশি। যদিও ২০১৯–২০ সালের কোনও হিসাবই এখনও পাওয়া যায়নি, জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী ভি.‌ মুরলিধরণ। বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় মুরলিধরণ জানিয়েছেন, ২০১৬–১৭ সালে মোদির চার্টার্ড বিমানের ভাড়া বাবদ খরচ হয়েছে ৭৬ কোটি ২৭ লক্ষ টাকা। ২০১৭–১৮ সালে সেই অঙ্ক বেড়ে দাঁড়ায় ৯৯ কোটি ৩২ লক্ষ। ২০১৮–১৯ এ খরচ হয়েছে ৭৯ কোটি ৯১ লক্ষ টাকা। সব মিলিয়ে খরচ প্রায় ২৫৫ কোটি টাকা। 
অন্যদিকে ২০১৬–১৭ সালে হটলাইন বাবদ খরচ হয়েছে প্রায় দু’‌কোটি ২৫ লক্ষ এবং ২০১৭–১৮ সালে খরচ হয়েছিল প্রায় ৫৯ লক্ষ টাকা। বিদেশ সফরের সংখ্যা এবং খরচ– দু’‌দিক দিয়েই ইউপিএ জমানায় প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং–কে টেক্কা দিয়েছে দেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী। 
স্বাভাবিক ভাবেই মোদীর ঘন ঘন বিদেশ সফর এবং বিপুল খরচের বহর নিয়ে প্রশ্ন তুলে মাঝেমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন বিরোধীরা। যদিও মোদি সরকারের যুক্তি, কংগ্রেস জমানার চেয়ে বিজেপি জমানায় আন্তর্জাতিক মহলে ভারতের কূটনৈতিক অবস্থান অনেক ভাল। আর সেটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর এই বিদেশ সফরের জন্যই। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top