আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ একের পর এক বিজেপি শাসিত রাজ্য ‘‌লাভ জেহাদ’‌ রোখার জন্য আইন আনছে। উত্তরপ্রদেশও সেই ঘোষণা করেছে। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, ‘‌লাভ জেহাদ’‌–এর সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের শেষকৃত্য করে দেবেন। এ হেন যোগী রাজ্যেরই কানপুর শহরের পুলিশ সম্পূর্ণ অন্য এক তথ্য দিল।
তারা জানিয়ে দিল, ভিন ধর্মের ছেলে–মেয়ের বিয়ের ক্ষেত্রে কোনও ষড়যন্ত্র দেখতে পায়নি তারা। কোনও বিদেশি অনুদান এসব ক্ষেত্রে এসেছে বলেও প্রমাণ মেলেনি। গত দু’‌বছরে কানপুরে ১৪টি ভিন ধর্মের বিয়ের ঘটনায় তদন্ত করছে কানপুর পুলিশ। সেই পরিপ্রেক্ষিতেই এই তথ্য উঠে এল।
কট্টরপন্থীরা দাবি করে, হিন্দু মেয়েদের ভালোবাসা, টাকার টোপ দিয়ে সংখ্যালঘুরা বিয়ে করেন। তার পর ধর্মান্তরিত হতে বাধ্য করেন। তাদের ভাষায়, এটাই ‘‌লাভ জেহাদ’‌। কেন্দ্র সরকার অবশ্য সংসদে এই বিষয়টি মানতে চায়নি।
এবার কানপুর পুলিশ তদন্তে নেমে দেখল, ১৪টি ভিনধর্মে বিয়ের ঘটনার মধ্যে ১১টির ক্ষেত্রে অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। বাকি তিনটি ক্ষেত্রে পাত্রীরা প্রাপ্তবয়স্ক। তাই কোনও তদন্ত হচ্ছে না। সেকথা জানালেন কানপুরের আইজি মোহিত আগরওয়াল। কী ধরনের অপরাধ?‌ ১১টি মামলার ক্ষেত্রে দেখা গেছে, কয়েকটিতে পাত্রী নাবালিকা। কয়েকটিতে আবার পাত্র নাম, পরিচয়, ধর্ম গোপন করেছে। তবে এসবের পিছনে কোনও সংগঠনের কারসাজি বা বিদেশি শক্তির হাত খুঁজে পায়নি পুলিশ। 

জনপ্রিয়

Back To Top