আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে আতঙ্ক বাড়ছে ভারতে। লাগাতার বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। রূপ পাল্টে  ভয়াবহ হয়ে গিয়েছে মারণ ভাইরাসটি। এই উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে সংক্রমণের গতি শ্লথ করতে ‘প্রতীকী কুম্ভমেলা পলনের আর্জি জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। শনিবার টুইটারে প্রধানমন্ত্রী মোদি লেখেন, ‘‌দুটো শাহী স্নান হয়ে গিয়েছে। এবার আমার প্রার্থনা যে করোনা মহামারীর কথা মাথায় রেখে প্রতীকী কুম্ভমেলা পালন করা হোক। এর ফলে এই সংকটের সঙ্গে লড়াই করার শক্তি পাওয়া যাবে।’‌ নিজের টুইটারে প্রধানমন্ত্রী আরও লেখেন, ‘‌আচার্য মহামণ্ডলেশ্বর পূজ্য স্বামী অবধেশানন্দ গিরিজির সঙ্গে আজ ফোনে কথা বলেছি। সমস্ত সন্তদের স্বাস্থ্যের খোঁজ নিয়েছি। প্রশাসনের সঙ্গে সন্ন্যাসীরা সহযোগিতা করছেন। এর জন্য আমি তাঁদের ধন্যবাদ জানিয়েছি।’‌ 
সংক্রমণ রুখতে জমায়েতে বারবাররাশ টানার কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। এই পরিস্থিতিতেই উত্তরাখণ্ডের হরিদ্বারে চলছে কুম্ভমেলা। সেখানে বেশ কয়েকজন সন্ন্যাসীর শরীরে কোভিডের লক্ষণ দেখা দিয়েছে। ফলে কুম্ভমেলা ত্যগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিরঞ্জনি আখড়া ও তপোনিধি শ্রী আনন্দ আখড়া। এদিকে, অখিল ভারতীয় আখড়া পরিষদের সভাপতি নরেন্দ্র গিরি মহারাজও করোনা আক্রান্ত হয়ে আপাতত এইমসে চিকিৎসাধীন। গত এপ্রিল মাসের ১৩ তারিখ মধ্যপ্রদেশের মহা নির্বাণী আখড়ার মহামণ্ডলেশ্বর স্বামী কপিল দেবের করোনায় মৃত্যু হয়েছে। সব মিলিয়ে সন্তদের মধ্যেও দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে এই ভাইরাস।
 

জনপ্রিয়

Back To Top