আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে উত্তরপূর্বাঞ্চলজুড়ে চলা বিক্ষোভের মধ্যেই শনিবার একগুচ্ছ প্রকল্পের উদ্বোধন এবং শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী। শুক্রবার গুয়াহাটি বিমানবন্দরে মোদি নামতেই তাঁকে কালো পতাকা দেখিয়েছিল বিক্ষোভকারীরা। অল অসম স্টুডেন্টস্‌ ইউনিয়ন বা আসু ‘‌নরেন্দ্র মোদি গো ব্যাক’‌ স্লোগান তোলে। বিজেপির প্রাক্তন শরিক অসম গণ পরিষদ মোমবাতি হাতে প্রতিবাদ মিছিল করে। তারপর শনিবারও তার অন্যথা হয়নি। এদিনও মোদি অসম পৌঁছতেই তাঁকে ফের কালো পতাকা দেখায় বিক্ষোভকারী। তার মধ্যেই চাংসারিতে এইমস্‌–এর নির্মাণ প্রকল্পের সূচনা করে নাগরিকত্ব বিল নিয়ে তাঁর সাফ মন্তব্য, ‘‌উপযুক্ত তদন্ত এবং রাজ্য সরকারের সুপারিশের পরই কাউকে নাগরিত্ব দেওয়া হবে।

অসমের স্বার্থের প্রতি আমার সরকার দায়বদ্ধ।’ এদিন গুয়াহাটিতে ব্রহ্মপুত্রের উপর ছয় লেনের সেতুর শিলান্যাস,  বারাউনি–গুয়াহাটি গ্যাস পাইপলাইন এবং নুমালিগঢ় সংশোধনাগারের বায়ো–ডিজেল প্লান্টের উদ্বোধনও করেন প্রধানমন্ত্রী। চৌকিদারের চোখ থেকে দুর্নীতিগ্রস্তরা রেহাই পাচ্ছে না বলেই ভয় পেয়ে কটূক্তির প্রতিযোগিতায় নেমেছে তারা বলে বিরোধীদের কটাক্ষ করেন মোদি। ‌
এদিন সকালে প্রথমে অরুণাচলপ্রদেশের পারুম পারে জেলার হলোঙ্গিতে সবুজ বিমানবন্দরের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। এর ফলে অরুণাচল প্রদেশের সঙ্গে সারা দেশের যোগাযোগ উন্নত হবে। সেলায় সুড়ঙ্গ নির্মাণ প্রকল্পের সূচনাও করেছেন তিনি।

এই সুড়ঙ্গ দিয়ে ভারত–চীন সীমান্তের তাওয়াং মাত্র এক ঘণ্টায় পৌঁছনো যাবে। রাজ্য সরকারকে অভিনন্দন জানিয়ে মোদি বললেন, সৌভাগ্য প্রকল্পের আওতায় অরুণাচল প্রদেশের সব ঘরেই বিদ্যুৎ সংযোগ এসে গিয়েছে। মোদির সফরের প্রতিবাদে নাগাল্যান্ড, মণিপুরে শনিবারের অনুষ্ঠান বয়কট করেছে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দল এবং বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন বিক্ষোভ। 
সব শেষে ত্রিপুরায় গার্জি–বেলোনা রেলপথের উদ্বোধন এবং ত্রিপুরা ইন্সটিটিউট অফ টেকনোলজির নতুন ভবনের দ্বারোদ্‌ঘাটন করেন মোদি। তারপর আগরতলায় মহারাজা বীর বিক্রম বিমানবন্দরে মহারাজা বীর বিক্রমকিশোর মানিক্য বাহাদুরের মূর্তি উন্মোচন করেন প্রধানমন্ত্রী। ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top