আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ সংসদের বাজেট অধিবেশনে জবাবি বক্তব্য রাখতে গিয়ে বুধবার নরেন্দ্র মোদিকে পাওয়া গেল আগুনে মেজাজে। কংগ্রেস সহ বিরোধীদের তুলোধোনা করলেন প্রধানমন্ত্রী। যদিও পাল্টা হট্টগোলও করেন বিরোধীরা। একনজরে দেখে নেওয়া যাক, কী কী বললেন মোদি।
❏‌ কংগ্রেসকে কটাক্ষ করে মোদি বলেন, ‘‌আমাদের গণতন্ত্র শেখাতে আসবেন না। আপনাদের মুখে গণতন্ত্রের কথা মানায় না। আপনাদের জন্যই বল্লভভাই প্যাটেল প্রধানমন্ত্রী হতে পারেননি। তিনি প্রধানমন্ত্রী হলে দেশভাগ হতো না। দেশভাগের কুফল আজও ভোগ করছেন দেশবাসী।’‌
❏ ‌এরই মধ্যে বিরোধীরা হট্টগোল শুরু করায় মোদি বলেন, ‘‌বিরোধীদের তো আমার বক্তব্য ধৈর্য ধরে শোনারই সময় নেই।’‌
❏‌ দেশের উন্নয়নের সংক্ষিপ্ত খতিয়ান দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বলেছেন,  ‘‌দেশের ৪৩২০ শহরে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা কার্যকর করা হয়েছে। ১,২০,০০০ কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। ২২ হাজার মেগাওয়েট অতিরিক্ত বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়েছে। কংগ্রেস সরকার এটা করা তো দূরে থাক, ভাবতেও পারে না।’‌
❏ মোদি বলেন,‌ ‘‌ভারতের গণতন্ত্রের ইতিহাস ২৫০০ বছরের প্রাচীন। নিজেদের স্বার্থের কারণে কিছু দল এদের এই গণতন্ত্রের অসম্মান করেছে। কিন্তু আমি এই গণতন্ত্রের পাহারাদার। আমি কোনও ক্ষতি হতে দেবো না।’‌
❏‌ কংগ্রেসের তুমুল সমালোচনা করে মোদি বলেন, ‘‌দেশ চালাতে গেলে তরুণ প্রজন্মের সামনে আসা খুব দরকার। না হলে গণতন্ত্র শ্লথ হয়ে পড়বে। কংগ্রেস তরুণ প্রজন্মকে সামনে আসতে দেয় না। স্বার্থসিদ্ধির জন্য গদি দখল করে বসে থাকে। এরাই গণতন্ত্রের ক্ষতি করছে।’‌
❏‌ কংগ্রেসের শরিকি ঐক্যের প্রসঙ্গে খোঁচা দিয়ে মোদির মন্তব্য, ‘‌কেরলে কংগ্রেস কী করছে সবাই দেখতে পাচ্ছে। তামিলনাড়ুতে কংগ্রেস কী করছে, সবাই দেখতে পাচ্ছে। পাঞ্জাবে অকালি দলের সঙ্গে কংগ্রেস কী করছে সবাই দেখতে পাচ্ছে। মানুষ বোকা নয়। কংগ্রেস বহুবারই দীর্ঘ মেয়াদের জন্য ক্ষমতায় থেকেছে। যদি তারা সত্যি দেশের ভালর জন্য কাজ করত, তাহলে পরিস্থিতি অন্যরকম হতো।’‌
❏‌ আধার কার্ড নিয়েও মুখ খুলেছেন মোদি। বলেন, ‘‌যখন আধার কার্ড চালু করা হয়েছিল। তখন আপনারাই এর বিরোধিতা করেছিলেন। বলেছিলেন, আমার সরকার নাকি আধার বন্ধ করে দেবে। আধার বন্ধ হয়নি। বরং দেশের মানুষের উন্নতির কাজেই এটা ব্যবহার করা হচ্ছে।’‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top