আজকাল ওয়েবডেস্ক: উত্তরাখণ্ডের চম্পাবত জেলার বনবসা শহরতলির বাসিন্দা, অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী জানকী চন্দ পোলিও–আক্রান্ত হয়েও আজ বহু মানুষের জীবনের নতুন আশার আলো। ৩৪ বছরের জানকী শিশুবয়স থেকেই পোলিও–আক্রান্ত। নিজের লড়াইয়ের কথা বলতে গিয়ে জানকী জানালেন, তাঁর ১০ বছর বয়সে তাঁর মদ্যপ বাবা, তাঁদের চার ভাইবোন সহ তাঁদের মাকে ফেলে পালিয়ে যান। তখন মা এবং অন্য ভাইবোনদের সঙ্গে পেট চালাতে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতেন তিনি। ১৩ বছর পর্যন্ত হাঁটার জন্য দুই হাতে ভর দিয়ে চলতেন জানকী। তারপর লাঠির সাহায্যে উঠে দাঁড়ান। তখনই স্কুলে ভর্তি হন জানকী। বললেন, তাঁর পড়াশোনায় যথেষ্ট সাহায্য করেছেন তাঁর মা এবং বোন। ২০০৬ সালে অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী হিসেবে কাজ পান জানকী। তারপরই তাঁর জীবনের মোড় ঘুরে যায়। অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী হিসেবে শহরতলি এবং সংলগ্ন অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় গরিব শিশুদের নিয়ে কাজ করতে গিয়ে তিনি বুঝতে পারেন পাশে থাকার আশ্বাস পেলেই ওই শিশুরা নিজেদের জীবনের লক্ষ্য চিনতে পারবে। এভাবেই বহু শিশুদের জীবনের দিশা চেনাতে সাহায্য করছেন জানকী। নিজের জীবনের গল্প বলেও তাদের উদ্বুদ্ধ করেন তিনি। ২০১১ সালে তাঁর কাজের জন্য রাষ্ট্রপতি পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি। তবে নিজের কাজের ক্ষেত্র বাড়িয়ে আরও বেশি দরিদ্র শিশুদের সাহায্য করতে ইচ্ছুক জানকী।

জনপ্রিয়

Back To Top