আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফসল ঘরে ওঠে। এই উপলক্ষে পৌষ মাসের শেষ দিন, মকর সংক্রান্তিতে গোটা দেশ মেতে ওঠে উৎসবে। দক্ষিণে মিষ্টি খিচুড়ি পোঙ্গল রাঁধার রেওয়াজ রয়েছে। অহমিয়ারা পালন করে বিহু উৎসব। পাঞ্জাবে ফসল ঘরে তোলা উপলক্ষে পালিত হয় লোহ্‌ড়ি। পশ্চিমের রাজ্য গুজরাট আর রাজস্থান আবার ঘুড়ি ওড়ায় সংক্রান্তিতে। 
কেন ঘুড়ি ওড়ানো হয় এই দিনে?‌ মনে করা হয়, সূর্যের দিকে মুখ করে ঘুড়ি ওড়ালে রোগমুক্তি ঘটে। আসলে সূর্য ভিটামিন ডি–র উৎস। এই ভিটামিন ডি অনেক রোগ উপশম করে। হাড় মজবুত করে। 
এখন ধীরে ধীরে দেশের বেশি কিছু অংশেই ঘুড়ি ওড়ানো হয়। কিন্তু জানেন কি, এই ঘুড়ি ওড়ানোর জন্য বিশেষ অনুমোদনে প্রয়োজন হয়। আমাদের দেশের আইনে সে রকমই বলা রয়েছে। বিনা অনুমোদনে ঘুড়ি ওড়ানো অপরাধ। হতে পারে জরিমানা বা জেল। 
এয়ারক্রাফ্ট অ্যাক্ট ১৯৩৪–২(১)–এ এই শাস্তির বিষয়ে উল্লেখ রয়েছে। এই ধারায় বলা হয়েছে, হাওয়ায় উড়তে পারে এমন সব কিছু (বিমান, ঘুড়ি, বেলুন, ফ্লাইং মেশিন)–র জন্য লাইসেন্স লাগবে। লাইসেন্স ছাড়া ওড়ালে ১০ লক্ষ টাকা জরিমানা, নয়তো দু’‌ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে। গত বছর এই ধারা সংশোধন হয়েছে। সংশোধিত আইন বিমানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। ঘুড়ির জন্য নয়। ঘুড়ি ওড়াতে এখনও দরকার লাইসেন্স। 

জনপ্রিয়

Back To Top