আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ অতি সক্রিয় হয়ে আছে মৌসুমি বায়ু। আগামী দুদিন আরব সাগর এবং পশ্চিমী উপকূলজুড়ে     বইবে জোরাল দক্ষিণপশ্চিমী এবং পশ্চিমী বায়ু। তার জেরে আগামী ২৪ ঘণ্টা কেরল, মাহে, কর্নাটকের দক্ষিণ, মধ্যবর্তী এবং উপকূল অঞ্চল এবং তামিল নাড়ুতে বিক্ষিপ্তভাবে অত্যধিক ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস দিল মৌসম ভবন।
অত্যধিক ভারী বর্ষণের পূর্বাভাসের কারণে কেরলের বিভিন্ন জেলায় লাল, কমলা এবং হলুদ সতর্কতা জারি করেছে মৌসম ভবন। লাল সতর্কতা জারি হয়েছে আলাপ্পুঝা, ইদুক্কি, মালাপ্পুরম, কোঝিকোড়, ওয়ানাড়, কান্নুর এবং কাসাগোড় জেলায়।

কমলা সতর্কতা জারি হয়েছে কোল্লাম, পতনামথিট্টা, কোট্টায়ম, এর্নাকুলাম, ত্রিশূর এবং পালাক্কড় জেলায়। হলুদ সতর্কতা জারি হয়েছে তিরুবনন্তপুরম জেলায়। কর্নাটকের দক্ষিণ কর্নাটক জেলায় নেত্রাবতী নদী বিপদসীমা পেরিয়ে যাওয়ায় বান্তোয়াল অঞ্চলে লাল সতর্কতা জারি হয়েছে।
ইদুক্কি জেলার রাজামালা অঞ্চলে চা শ্রমিকদের বসতিতে ধসে রবিবার সকাল পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৮জন। জেলা প্রশাসনের তরফে একথা জানিয়ে বলা হয়েছে এখনও চলছে উদ্ধারকাজ। শুক্রবারই মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন মৃতদের পরিবার পিছু পাঁচ লক্ষ টাকা এবং প্রধানমন্ত্রী মৃতদের পরিবার পিছু দুলক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছিলেন।

রবিবার সকালেও ওয়ানাড়ে ধস নেমে দুটি বাড়ি ভেঙে পড়ে। তবে বাসিন্দাদের আগেই নিরাপদ স্থানে সরানো হয়েছিল। 
এছাড়া ওডিশা থেকে অন্ধ্র উপকূল পর্যন্ত উত্তরপশ্চিম এবং পশ্চিমমধ্য বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি হয়েছে নিম্নচাপ। তার জেরে ওডিশা, বিদর্ভ, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ, আন্দামান–নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ, ঝাড়খণ্ড, ছত্তিশগড় এবং উত্তরপূর্বের রাজ্যগুলিতে বিক্ষিপ্তভাবে মাঝারি থেকে অতি ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে আগামী দুদিন।
ছবি:‌ এএনআই‌

জনপ্রিয়

Back To Top