আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভারতে এসেছিলেন। ইচ্ছে ছিল ‘‌ভগবানের আপন দেশ’ কেরল ঘুরে দেখবেন। কিন্তু কোথায় কী!‌ করোনা সংক্রমণে গত মার্চ মাস থেকে স্তব্ধ গোটা ভারতের জনজীবন। এখনও খোলেনি আন্তর্জাতিক উড়ান। ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে এবং বিদেশিদের তাঁদের নিজের দেশে ফেরাতেই কয়েকটি মাত্র উড়ান চলছে। এই অবস্থায় গত পাঁচ মাস ধরে কোচিতেই আটকে রয়েছেন ৭৪ বছর বয়সি মার্কিন নাগরিক জনি পিয়ার্স। আর ফিরতে চান না নিজের দেশে?‌ কারণ তাঁর মতে, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে উদাসীন মার্কিন প্রশাসন। সেখানে দুর্দান্ত কাজ করছে ভারত তথা কেরল সরকার। আর তাই আপাতত সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ঠাঁই ভারতই। এখান থেকেই নতুন জীবন শুরু করতে চান জনি। তার জন্য হাইকোর্টেও গিয়েছেন তিনি। 
গত ছ’‌মাসে গোটা বিশ্বের দখল নিয়েছে করোনা, আর কেরলে আটকে থাকা অবস্থাতেই সেই ছবি দেখেছেন মার্কিন নাগরিক জনি পিয়ার্স। সংবাসংস্থা এএনআই–কে এক সাক্ষাৎকারে জনি এদিন বলেন, ‘‌ওখানে বিশৃঙ্খলা চলছে। সরকার কোনওরকম দায়িত্ব নিচ্ছে না। উল্টোদিকে ভারতে সরকার অনেক বেশি সতর্কতার সঙ্গে কাজ করছে। এই কারণেই আমি এখানে থাকতে চাই। আদালতের কাছে আমার আবেদন, আমার টুরিস্ট ভিসা বিজনেস ভিসায় রূপান্তরিত করা হোক।’‌ আপাতত আদালতে জনি আর্জি জানিয়েছেন, তাঁকে যাতে আরও অন্তত ১৮০ দিন থাকতে দেওয়া হয়। তবে জনির আক্ষেপ একটাই, তাঁর সঙ্গে পরিবার নেই। তিনি বলেন, ‘‌আমার ওদের জন্য মন খারাপ হয়। ওঁরা বিপদের মধ্যেই দিন কাটাচ্ছে, এই সময়টা ওঁরা আমার সঙ্গে থাকলেই সবচেয়ে স্বস্তিতে থাকতে পারতাম।’‌

 

জনপ্রিয়

Back To Top