আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বহু প্রতীক্ষিত অযোধ্যা জমি বিতর্ক মামলার রায় ঘোঘিত হয়ে গিয়েছে। আর এদিনই করতারপুর করিডর খুলে দিল পাকিস্তান। এই করিডরের মধ্যে দিয়ে শিখ তীর্থযাত্রীরা পাকিস্তানের দরবার সাহিবে যাবেন। শিখ ধর্মের প্রবর্তক গুরু নানকের ৫৫০তম জন্মবার্ষিকীর আর তিন দিন বাকি। তার আগেই ৯ নভেম্বর এই করিডরের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। প্রথম ৫৫০ জন শিখ তীর্থযাত্রী কর্তারপুর যাবেন সেই দলে রয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং, অভিনেতা–রাজনীতিবিদ সানি দেওল এবং দুই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ পুরী ও হরসিমরত কউর বাদল। কংগ্রেস বিধায়ক নভজোত সিং সিধুকেও দরবার সাহিবে যাওয়ার ব্যাপারে বৃহস্পতিবার ছাড়পত্র দিয়েছে বিদেশমন্ত্রক। এদিকে সীমান্তের ওপারে করতারপুর করিডরের সূচনা করবেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। 
করতারপুর করিডর উদ্বোধন করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘‌সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে অনেক ধন্যবাদ। পাঞ্জাব প্রদেশের করতারপুর করিডর আস্থা–ধর্মবিশ্বাসের স্থান। আস্থা–ধর্মবিশ্বাস নিয়ে রাজনীতি করা একেবারেই উচিত নয়। গুরু নানকের দর্শনের কথা মাথায় রেখেই পাঞ্জাব প্রদেশকে আরও উন্নত করে তোলা হবে। অমৃতসরে তৈরি করা হবে বিশ্ববিদ্যালয়।’‌ 
সাড়ে চার কিলোমিটার দীর্ঘ করিডর পাঞ্জাবের গুরদাসপুরের ডেরা বাবা নানক ও করতারপুরের দরবার সাহিবকে সংযুক্ত করেছে। সীমান্ত থেকে মাত্র ৪ কিমি দূরে ছোট্ট শহর করতারপুর। এটি পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের নারোয়াল জেলায় অবস্থিত। কথিত যে, এখানেই জীবনের শেষ ১৮ বছর কাটান শিখ ধর্মের প্রবর্তক গুরু ‌নানক।  ‌

জনপ্রিয়

Back To Top