আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌কর্নাটক লোকায়ুক্তর বিচারপতি পি বিশ্বনাথ শেঠি ছুরিকাহত হলেন। নিজের এজলাসে মামলা চলাকালীন এই ঘটনায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। বুধবার শুনানি চলাকালীন এক অভিযোগকারী ভিড়ের মধ্য থেকে বেরিয়ে বিচারপতির কাছে পৌঁছে যায়। তখন কেউ ভাবতে পারেনি এমন ঘটনা ঘটতে চলেছে। পকেট থেকে ছুরি বার করে একাধিকবার কুপিয়ে দেয় বিচারপতির বুকে। ভরদুপুরে এই ঘটনায় বিচারপতি সহ–গোটা ভবনের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। 
পুলিস সূত্রে খবর, অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার নাম তেজস শর্মা। এই ব্যক্তির নামে একাধিক মামলা রয়েছে। আর রক্তাক্ত অবস্থায় বিচারপতিকে মাল্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কিন্তু কি করে অভিযুক্ত ব্যক্তি ছুরি নিয়ে এজলাসে প্রবেশ করলেন তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ছুরিটা উদ্ধার করা হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিস। 
এদিকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রাক্তন লোকায়ুক্ত বিচারপতি সন্তোষ হেগড়ে। তিনি অভিযোগ করেন, ‘‌এখানে অবশ্যই নিরাপত্তা ব্যবস্থায় খামতি ছিল। তাই এই ঘটনা ঘটেছে।’‌ পাল্টা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন শাসকদল কংগ্রেসের সভাপতি ব্রিজেশ কালাপ্পা। তাঁর দাবি, ‘‌নিরাপত্তায় কোনও খামতি ছিল না। কারণ সেখানে একাধিক সিসিটিভি রয়েছে। মেটাল ডিটেকটার রয়েছে। বহু মানুষ সেখানে নজর রাখে। তাহলে নিরাপত্তায় খামতি রইল কোথায়। আক্রমণকারি আসলে মানসিক ভারসাম্যহীন। তাই এই ঘটনা ঘটেছে।’‌ ‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top