আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ঘরোয়া হোক বা আন্তর্জাতিক উড়ান, সব ধরনের টিকিটের মূল্যই তারা ফেরত দেবে। যাত্রীদের এই আশ্বাস দিয়েছে বসে যাওয়া বিমান কোম্পানি জেট এয়ারওয়েজ। কিন্তু কবে সেই টাকা ফের দেওয়া হবে তা বিস্তারিতভাবে জেটের তরফে কিছুই জানানো হয়নি যাত্রীদের। সেজন্যইটিকিটের টাকা তাঁরা আদৌ ফেরত পাবেন কিনা তা নিয়ে এখন রীতিমতো চিন্তায় মূলত ইকোনমি ক্লাসের যাত্রীরা। কারণ এবছর, ১৫ দিন আগে টাকা টিকিটের দাম গত বছরের তুলনায় প্রায় ১০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। তিন দিন আগে কাটা টিকিটের দাম বেড়েছে প্রায় ৩০ শতাংশ। 
এদিকে, শুক্রবার যন্তর মন্তরের সামনে বিক্ষোভ দেখানোর পর শনিবার নিজেদের বকেয়া বেতনের দাবিতে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ চেয়ে চিঠি লিখেছেন জেটের ২৩০০০ কর্মীদের দুটি কর্মচারী সংগঠন। একই চিঠি তারা প্রধানমন্ত্রীকেও পাঠিয়েছে। সংসার চালানোর দুশ্চিন্তা এবং সন্তানদের ভবিষ্যত নিয়ে শঙ্কিত জেটের পাইলট, কেবিন ও গ্রাউন্ড ক্রু, প্রযুক্তিবিদ, নিরাপত্তাকর্মী, সহ প্রায় সব বিভাগের কর্মীরা শুক্রবারের বিক্ষোভে সামিল হয়েছিলেন। তাঁদের প্রশ্ন ছিল, স্কুল, কলেজের মাইনে দিতে না পারায় সেখান থেকে তাঁদের সন্তানদের বের করে দিতে পারে কর্তৃপক্ষ। এজন্য জেটের প্রাক্তন মালিক নরেশ গোয়েল নাকি সিবিআই, কে দায়ী সেই প্রশ্ন তুলেছেন অসহায় কর্মীরা।
অন্যদিকে, শুক্রবারই স্পাইসজেটের চেয়ারম্যান অজয় সিং বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন, ইতিমধ্যেই তাঁরা জেটের ১০০ জন পাইলট, ২০০ জন কেবিন ক্রু, প্রযুক্তিবিদ এবং বিমানবন্দরের কর্মী মিলিয়ে ২০০ জন, মোট ৫০০ জনকে নিয়োগ করেছেন। প্রয়োজনে সেই সংখ্যাটা আরও বাড়ানো হবে। বৃহস্পতিবার থেকে স্পাইসজেট মুম্বই এবং দিল্লির জন্য ২৪টি নতুন উড়ান চালু করেছে। তার মধ্যে ১৬টি শুধু মুম্বই, চারটি দিল্লির এবং বাকি চারটি মুম্বই–দিল্লি সংযোগকারী উড়ান। এজন্য ২৭টি নতুন বিমানও নিয়েছে স্পাইসজেট। আগামী ২৬ থেকে দোসরা এপ্রিলের মধ্যে চালু হবে এই ২৪টি নতুন উড়ান। সেজন্যই নতুন নিয়োগ করা হয়েছে স্পাইসজেটে। অজয় সিং জানিয়েছেন, এই নতুন নিয়োগে সদ্য চাকরি হারানো জেটের কর্মীদেরই অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।

জনপ্রিয়

Back To Top