সংবাদ সংস্থা
লখনউ, ১২ জুলাই

২০২২–‌এ উত্তরপ্রদেশে অগ্নিপরীক্ষা কংগ্রেসের। অগ্নিপরীক্ষা প্রিয়াঙ্কা গান্ধীরও। কারণ বিধানসভা নির্বাচন। যোগী সরকারকে পরাস্ত করে উত্তরপ্রদেশে একক শক্তিতে ক্ষমতা দখল করতে চায় কংগ্রেস। সেই লড়াইয়ে কংগ্রেসের মুখ হবেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদ্র। এমনিতে বহুদিন ধরেই উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসের যা হাল, তাতে ক্ষমতায় ফেরার লক্ষ্যকে দিবাস্বপ্ন বলেই মনে হবে। কিন্তু উত্তরপ্রদেশে প্রিয়াঙ্কার হাত ধরে এই অসম্ভবকে সম্ভব করেই ‌ভারতের রাজনীতিতে পুনর্জন্মের আশায় কংগ্রেস। রবিবারই উত্তরপ্রদেশ কংগ্রেসের প্রধান অজয়কুমার লাল্লু স্পষ্ট করে দিয়েছেন, ‌‘‌আগামী বিধানসভা নির্বাচনে কোনও দলের সঙ্গে সমঝোতা করবে না কংগ্রেস। দল সমঝোতা করবে জনতা, গণতন্ত্র, কৃষক, গরিব, দলিত, নির্যাতিত ও বঞ্চিত মানুষের সঙ্গে।’‌ পাশাপাশি তিনি জানান, এই লড়াইয়ের নেত্রী প্রিয়াঙ্কাই। কারণ তিনি এই প্রদেশের মানুষ। উত্তরপ্রদেশের কোটি কোটি মানুষের জন্য বিশেষ ভালবাসা রয়েছে তাঁদের পরিবারের। লাল্লু জানান, তিনি নিশ্চিত যে, প্রিয়াঙ্কার নেতৃত্বেই উত্তরপ্রদেশে সরকার গড়বে কংগ্রেস। তাঁর বক্তব্য, প্রিয়াঙ্কা প্রতিটি ইস্যুতে রাস্তায় নামছেন। তাঁর চারপাশে জড়ো হচ্ছেন বহু মানু্ষ। তাঁকে ঠেকাতে কংগ্রেস কর্মীদের ওপর নামছে পুলিশি নির্যাতন। আর প্রিয়াঙ্কার জনপ্রিয়তাই বিজেপি–র মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠেছে। লাল্লুর দাবি, এর আগে কংগ্রেসের আমলে এই রাজ্যে বহু বড়–ছোট শিল্প গড়ে উঠেছিল। গড়ে উঠেছিল চিনিকল। তারপর এ রাজ্যে দীর্ঘদিন রাজত্ব করেছে এসপি, বিএসপি ও বিজেপি। এখন বন্ধ অধিকাংশ চিনিকল। উত্তরপ্রদেশকে নতুন করে গড়তে চায় কংগ্রেস। দলে ভোটে জিতলে গড়া হবে বিকশিত ও সমৃদ্ধ ইউপি।

জনপ্রিয়

Back To Top