আজকাল ওয়েবেডেস্ক:‌ দিল্লিতে বিজেপি সাংসদের ‘‌বিষাক্ত’ বিতর্কিত‌ ভাষণের জন্যেই দলকে হারের মুখ দেখতে হয়েছে। একবাক্যে স্বীকার করে নিলেন দিল্লিতে বিজেপির সাংসদ গৌতম গম্ভীর। দিল্লির বিধানসভায় হারের জন্য নিজেকেও দায়ী করলেন তিনি। 
‌দিল্লি নির্বাচনে ‘‌ঝাড়ু’ পেটা খেয়েছে বিজেপি। কিন্তু কেন এমনটা হল?‌ কারণ অনুসন্ধান করতে গিয়ে এবার ধীরে ধীরে নিজেদের ভুল স্বীকার করতে শুরু করেছেন বিজেপি নেতা–মন্ত্রী–সাংসদরা। ‘‌বিষাক্ত’ ভাষণ দেওয়া যে একেবারেই উচিত হয়নি, সেকথা স্বীকার করে নিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।‌ বৃহস্পতিবার অমিত শাহ বলেছেন, ‘‌বিজেপির নেতারা হিংসাত্মক স্লোগান দিয়ে ভুল করেছে, সেইসব স্লোগানের কোনও দায় নেই দলের। ‌গোলি মারো, এইরকম স্লোগান দেওয়া উচিত হয়নি।’‌ সেই বক্তব্যেই সুর মিলিয়ে প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর বলেন, ‘‌আমাদের দিল্লিকে যোগ্য বানাতে হবে, অসহায় নয়। এই রায়ের ফলে আজ স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে মানুষ আমাদের প্রচারকে পাত্তা দেয়নি।’‌ এরই পাশাপাশি আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে খোঁচা মারতেও ছাড়েননি বিজেপি সাংসদ। তিনি বলেছেন, ‘‌অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সরকার বিনামূল্যে পরিষেবা দেওয়াটাইকেই গুরুত্বপূর্ণ কাজ হিসাবে মনে করে। যদি একটি মেয়ে বিদ্যালয়ে যায় আর তাঁকে আপনারা বিনামূল্যে সাইকেল দেন সেটা ভালো কাজ কিন্তু এটা কারোর ভোটব্যাঙ্ক হতে পারে না। যদি একটা মেয়ে কলেজে পিএইচডি পড়ে তাঁকে আপনি স্কুটি দিয়ে ভোট চাইছেন সেটা ঠিক নয়।’‌ ‌
দিল্লিতে এই ফলের জন্য ইতিমধ্যেই সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন মনোজ তিওয়ারি। সেই বিষয়ে এদিন গৌতমকে জিজ্ঞাসা করা হয়, যদি মনোজ সভাপতির পদ ছেড়ে দেন তাহলে কী পরবর্তী সভাপতি পদে উনি বসবেন? উত্তরে গম্ভীর জানান, ‘‌এখনও সময় রয়েছে, চিন্তাভাবনা করে বলব।’‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top