বাংলায় হার থেকে শিক্ষা!‌ আগামী বছর পাঁচ রাজ্যে ভোটের রণকৌশল তৈরিতে ব্যস্ত বিজেপি  

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ‘‌চিন্তন বৈঠক।’‌ সত্যিই চিন্তার বিষয়। বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করার জন্য এত প্রচার। ঘনঘন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের জনসভা। সবকিছু বিফলে গেছে। বাংলার নির্বাচনে মুখ থুবড়ে পড়েছে গেরুয়া শিবির। এবার সামনেই পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। নির্বাচনী রণকৌশল ঠিক করতে কাজে নেমে পড়ল বিজেপি। একাধিক বৈঠকে পরিকল্পনা ছকার কাজ শুরু হয়েছে। বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা ইতিমধ্যেই রাজ্য স্তরে বৈঠক শুরু করে দিয়েছেন। আগামী ১০ জুলাইয়ের মধ্যে নির্বাচনী রণকৌশলের খসড়া পরিকল্পনা তৈরি করার উপর জোর দেওয়া হয়েছে।
আগামী বছর উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাব, উত্তরাখণ্ড, গোয়া ও মণিপুরে বিধানসভা নির্বাচন। তার মধ্যে পাঞ্জাব ছাড়া সর্বত্র ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি। এদিকে, রাজ্যস্তরে বৈঠকের পর ছোট ছোট দল নাড্ডার সঙ্গে দিল্লিতে আলোচনা করেছে। নির্বাচনী পরিকল্পনার কথা নাড্ডাকে জানানো হয়েছে। এবার কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব পাঁচ রাজ্যের জন্য নির্বাচনী রণকৌশল ঠিক করবে। 
ইতিমধ্যেই পাঁচ রাজ্যের দলীয় কর্মীদের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডে আরও বেশি করে যুক্ত থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পাঁচ রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্বকে বলা হয়েছে ২১–৩০ জুন এর মধ্যে ভার্চুয়াল বৈঠকে গোটা বিষয়ে আলোচনা করে নেওয়ার জন্য।
জাতীয় স্তরে কর্মীদের নির্বাচনী ট্রেনিং চলবে প্রতি রবিবার সকাল ১০.‌৩০ থেকে ১১.‌৩০ অবধি। রাজ্য স্তরে ট্রেনিং চলবে মঙ্গল কিংবা বুধবার সকাল ১০ টা থেকে। আর জেলা স্তরে ট্রেনিং চলবে বৃহস্পতি, শুক্র কিংবা শনিবার সকাল ১০ টা থেকে। বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা দুষ্মন্ত গৌতম ও মুরলিধর রাও এই ট্রেনিংয়ের দায়িত্বে থাকবেন। এমনকি রাজ্য স্তরেও ট্রেনিং সেশন আয়োজনের কথা বলা হয়েছে। ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে এই ট্রেনিং সেশন শেষ করতে হবে। করোনা মোকাবিলায় দেশকে কীভাবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন নরেন্দ্র মোদি, তা নিয়ে একটি ডকুমেন্টরি দেখানো হবে প্রতিটি স্থানীয় ভাষায়। আপাতত ঠিক হয়েছে, ১০ জুলাই এই ডকুমেন্টরি দেখানো হবে। 
পাঁচ রাজ্যে নির্বাচনের জন্য একেবারে গ্রাউন্ড লেভেল থেকে কাজ শুরু করতে চাইছে বিজেপি। যেখানে মণ্ডল বা জোনাল, বুথ ও পান্না প্রমুখ তিনটি ভাগ থাকবে। প্রতিটি দলকে একটি ডেডলাইন দেওয়া হয়েছে। ভোটার তালিকা সংশোধন, নতুন ভোটার নথিভুক্তিকরণ সহ গোটা প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে আগামী বছর ৬ এপ্রিলের মধ্যে।