HIV: স্ত্রী ছেড়ে চলে গেছে, রাগে জোর করে ‘প্রোটেকশন’ ছাড়াই যৌনমিলন HIV আক্রান্ত স্বামীর   

আজকাল ওয়েবডেস্ক: প্রতিশোধ স্পৃহায় মানুষ কী না করতে পারে! মানুষ থেকে মনুষ্যেতর জীবে পরিণত হওয়া বিন্দুমাত্র অস্বাভাবিক নয়।

বেঙ্গালুরুর এই ব্যক্তি তেমনই এক নিদর্শন। এইচআইভি (HIV) আক্রান্ত তিনি, তাও জোর করে স্ত্রীর সঙ্গে কোনও সুরক্ষা ছাড়াই যৌন সংসর্গ করলেন। কারণ বিশ্বাসযোগ্যতার অভাবে ওই ব্যক্তিকে ছেড়ে গিয়েছিলেন তাঁর স্ত্রী। সেই রাগের জেরেই সুরক্ষা ছাড়াই যৌন মিলন। 
২৮ বছরের স্ত্রীটি এখন তার এইচআইভি পরীক্ষার ফলাফলের জন্য অপেক্ষা করছেন। কলাবিভাগের স্নাতক এবং একটি বস্ত্র কারখানার কর্মী তরুণীটি বনশঙ্করী মহিলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। থানা থেকে তাঁকে এক ফ্যামিলি কাউন্সেলিং সেন্টারে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। 
এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী ক্যাবচালক ওই ব্যক্তি এবং মহিলাটির বিয়ে হয়েছিল ২০১৫ সালে। এই মামলায় দেখভাল করা ফ্যামিলি কাউন্সেলর জানিয়েছেন, ওই ক্যাবচালক কার্যত একজন প্রতারক। তিনি বিবাহ-বিচ্ছেদের আইনি প্রক্রিয়া চলছে এমন বহু মহিলাকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। ওই ব্যক্তি এবং তার বোন এই সব মেয়েদের বিয়েতে রাজি করাতেন যাতে তার সম্পত্তি হাতানো যায়। এইভাবেই ২০১৫ সালে ওই তরুণীকে ফাঁসান ক্যাবচালকটি।  

আরও পড়ুন: আর্থিক প্রতারণার শিকার সানি লিওনি! তাঁর নামে নেওয়া হল ঋণ ​ 


বিয়ের পর তাকে একটি বাড়ির মধ্যে একটি এক কামরার ঘরে নিয়ে ওঠেন ক্যাবচালক। বলেন এটা তার কাকিমার বাড়ি। কিন্তু পতিতালয় সন্দেহে সেখান থেকেই ওই তরুণী এবং আরও কিছু মহিলাকে হানা দিয়ে তোলে। এতেই সন্দেহ হয় ওই তরুণীর। কিন্তু সে যাত্রা তাকে বুঝিয়ে শান্ত করে ওই প্রতারক। 
এরপর একদিন তরুণীটি তার প্রতারক স্বামীকে ওষুধ খেতে দেখেন। চাপাচাপি করলে তিনি জানান, তিনি এইচআইভি-তে আক্রান্ত। চাইলেও বাড়ি ছাড়তে পারেননি তরুণীটি কারণ তিনি আগেই নিজের বাড়িঘর ছেড়ে এসেছিলেন। ছ’ বছরের সম্পর্কে কোনও দিন ‘প্রোটেকশন’ ছাড়া যৌন মিলন করেননি তারা। কিন্তু এর পরেও স্বামীর অন্য নারীর সঙ্গে সম্পর্ক ধরে ফেলেন তিনি। তারপর বাধ্য হয়ে ছেড়ে চলে যান।          
 

আকর্ষণীয়খবর