Ex NSE CEO: ‌প্রাক্তন সেবি কর্তা চিত্রাকে নিয়ে সমুদ্রস্নানে যেতে চান!‌ কেন এরকম প্রস্তাব দিয়েছিলেন হিমালয়ের সাধু?‌ 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ তিনি নিমিত্ত মাত্র।

যা করার তা নাকি হিমালয়ের সাধুই করেন। উচ্চপদস্থ কর্তার নিয়োগ থেকে কর্মীদের পদোন্নতি, সবই নাকি হিমালয়ের সাধু ‘শিরোমণি’–র নির্দেশে করতেন বলে বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সেবি–কে জানিয়েছিলেন ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ বা এনএসই প্রাক্তন এমডি–সিইও চিত্রা রামকৃষ্ণ। এবার প্রকাশ্যে এল সেই সাধুর সঙ্গে চিত্রার মেল। চিঠিতে হিমালয়ের সাধু চিত্রাকে নিয়ে সমুদ্রস্নানে যাওয়ার ইচ্ছাও প্রকাশ করেছেন!‌ 
এটা ঘটনা ২০১৩ থেকে ২০১৬ সালের ডিসেম্বর অবধি এনএসই–র এমডি–সিইও থাকাকালীন চিত্রার বিরুদ্ধে একাধিক আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। ইতিমধ্যেই তাঁকে তিন কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সম্প্রতি এই মামলায় চিত্রার বাড়িতে গিয়ে টানা ১২ ঘণ্টা জেরা করেছে সিবিআই। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে খবর, গত ২০ বছর ধরে বছর ষাটের চিত্রা তাঁর ব্যক্তিগত থেকে পেশাগত, সব বিষয়ে হিমালয়ের ওই সাধুর পরামর্শ নিতেন। তাঁরা দেখা করতেন ‘পবিত্র স্থানে’। সেবি জানতে পেরেছে, ২০১৫ সালে একাধিকবার সাধুর সঙ্গে দেখা করেছেন চিত্রা। পাওয়া গিয়েছে একটি ই–মেল আইডি। যা সাধুর বলে জানিয়েছেন চিত্রা। এদিকে, চিত্রার দাবি, শিরোমণির আবাসস্থল হিমালয় হলেও তাঁর নির্দিষ্ট ঠিকানা নেই। যেখানে খুশি হাজির হতে পারেন তিনি। কোনও প্রয়োজন হলে ই–মেলে যোগাযোগ করতেন তাঁরা। এদিকে, যে মেল আইডি সাধুর বলে দাবি করেছেন চিত্রা, সেখান থেকে একাধিক মেল এসেছে তাঁর কাছে। সিবিআই সূত্রে খবর, চিত্রাকে ২০১৫ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি একটি মেল করা হয়। ওই চিঠিতে প্রেরক লিখেছেন, পরের মাসে সিসিলি যাওয়ার জন্য বাক্স–প্যাঁটরা বেঁধে তৈরি হচ্ছেন তিনি। চিঠিতে চিত্রাকে লেখা হয়, ‘তোমার সাহায্যের প্রয়োজন হলে জানিও। সাঁতার জানলে আমরা সিসিলিতে সমুদ্রস্নান উপভোগ করতে পারি। তারপর সৈকতে কিছুটা জিরিয়ে নেব। আমি আমার ট্যুর অপারেটরকে বলছি কাঞ্চনের সঙ্গে যোগাযোগ করে তোমার টিকিটের বন্দোবস্ত করতে।’ তবে কে এই কাঞ্চন তা জানার চেষ্টা করছে সিবিআই। এখানেই শেষ নয়। আবার ২০১৫ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি চিত্রাকে ওই একই আইডি থেকে আরও একটি মেল করা হয়। তাতে লেখা ছিল, ‘আজ তোমায় ভারি সুন্দর দেখাচ্ছে। বিভিন্নরকম ভাবে চুল বাঁধবে তুমি। তাতে তোমায় আরও সুন্দর ও আবেদনময়ী লাগবে। জানি তুমি মানবে। পারলে মার্চের মাঝামাঝি ফাঁকা থেকো।’ চিত্রাকে কেন এরকম চিঠি দিতেন ওই সাধু!‌ রহস্য বাড়ছে। চলছে তদন্ত। 

 

আরও পড়ুন:‌ গণপিটুনিতে মৃত প্রোমোটার, বারুইপুর কাণ্ডে গ্রেপ্তার ৩ 

আকর্ষণীয়খবর