আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ফের নির্বাচন। সঙ্গে তার প্রচার এবং নির্লজ্জ ভাষায় আক্রমণ। এবার প্রচারে গিয়ে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর প্রতি বেলাগাম মন্তব্য করে নজির গড়লেন হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টর। আর তার জেরে সমালোচিতও হলেন মুখ্যমন্ত্রী। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যকে বিজেপি’‌র নারী বিদ্বেষী চরিত্র প্রকাশ পেয়েছে বলে পাল্টা সমালোচনা করা হয়েছে।
ঠিক কী বলেছেন হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী?‌ তিনি বলেন, ‘‌লোকসভা নির্বাচনে পরাজয়ের পর দলের সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন রাহুল গান্ধী। আর জানিয়ে দেন, নয়া কংগ্রেস প্রধান গান্ধী পরিবার থেকে কেউ হবেন না। আমরা সেই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছিলাম। পরিবারতন্ত্রের রাজনীতির অবসান হওয়া ভাল। এরপর দেশজুড়ে সভাপতির খোঁজ শুরু করে তারা। তিন মাস পর সোনিয়া গান্ধীকে দলের সভানেত্রী করল। এটা তো সেইরকমই হল, পাহাড় খুঁড়ে ইঁদুর বেরলো। তাও মরা।’‌
‘‌বিজেপি’‌র মুখ্যমন্ত্রী যে মন্তব্য করেছেন তা কেবল সস্তা এবং আপত্তিকরই নয়, এটি বিজেপি’‌র নারী বিদ্বেষী চরিত্রও প্রকাশ করে। আমরা মুখ্যমন্ত্রী খট্টরের এই মন্তব্যের তীব্র নিন্দা করছি এবং তাঁর কাছ থেকে ক্ষমা চাওয়ার দাবি তুলছি।’‌ হিন্দিতে টুইট করা হয় কংগ্রেসের পক্ষ থেকে। উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী হওয়া মনোহরলাল খট্টর নিজের বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য কুখ্যাত। আগস্টে জম্মু–কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদাকে বিলোপ করে দেওয়ার পরে কাশ্মীরি মহিলাদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন এবং ব্যাপক সমালোচিত হন।
 

জনপ্রিয়

Back To Top