আজকাল ওয়েবডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির গড়েই এবার পাকিস্তানের হানা। আর তা নিয়ে খন জোর চর্চা চলছে।‌ প্রধানমন্ত্রী বিদেশে থাকাকালীন এই ঘটনায় জোর তল্লাশি শুরু হয়েছে। গুজরাটের হরমি নালা অঞ্চল থেকে দু’‌টি পাকিস্তানের নৌকা বাজেয়াপ্ত করেছে বিএসএফ। ভোরে টহলদারির সময় সাড়ে ৬টা নাগাদ পরিত্যক্ত অবস্থায় ওই দু’‌টি নৌকা দেখা যায়। তাতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।
বিএসএফ সূত্রে খবর, বাজেয়াপ্ত দু’‌টি নৌকাই এক ইঞ্জিনের ছিল। মূলত, মাছ ধরার কাজে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু, কী করে পাকিস্তানের নৌকা সেখানে এল তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। দিনভর এলাকায় চিরুনি তল্লাশি চলছে। নিছকই এখানে জলসীমা অতিক্রম করে চলে আসা, নাকি নাশকতার ছক ছিল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কারণ জম্মু–কাশ্মীরে কড়া প্রহরা থাকায় সেখান দিয়ে ঢুকে হামলা চালাতে পারছে না পাকিস্তান। তাই জলসীমান্ত দিয়েই হামলা চালানোর ছক রয়েছে বলে গোয়েন্দারা আগেই জানিয়েছিলেন।
ওই নৌকা দুটিতে করে গুজরাট উপকূল দিয়ে পাক জঙ্গি ভারতে ঢুকে পড়েছে কি না, ভারতীয় সীমান্তরক্ষীরা সে বিষয়ে সন্দিহান। রাত পর্যন্ত কেউ ধরা পড়েনি। সংলগ্ন অঞ্চল থেকে সন্দেহজনকও কিছু মেলেনি। এই রহস্য উদঘাটনে তল্লাশি জারি রেখেছে বিএসএফ। কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর এভাবেই হামলার ছক ছিল বলে বিএসএফের প্রাথমিক অনুমান। 

জনপ্রিয়

Back To Top