আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ওয়াশিংটনের সঙ্গে দীর্ঘ দিন ধরেই বাণিজ্য লড়াই চলছিল বেজিং–এর। এর মধ্যেই করোনাভাইরাস বিশ্বে আছড়ে পড়ে মহামারী রূপে। এবং এই মহামারীর পিছনে চীনের ভূমিকা নিয়ে বরাবরই সরব আমেরিকা বিশ্বের তাবড় রাষ্ট্রগুলি। তার উপর হংকং–এ চীনের জারি করা নতুন নিরাপত্তা আইন, পূর্ব লাদাখে ঢুকে পড়ে ভারতের ভূমি দখল করা। সব মিলিয়ে বিশ্বের বেশিরভাগ দেশকেই চটিয়ে দিয়েছে শি জিনপিং–এর দেশ। আর তাই ক্রমেই চীনের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ানোর চেষ্টা করছে বিভিন্ন বহুজাতিক কোম্পানি। সেই পথেই পা বাড়াল তাইওয়ানের কোম্পানি ফক্সকন।
এবার চীনের বদলে ভারতের শ্রীপেরামবুদুরে অ্যাপল্‌ আইফোন তৈরির কারখানা খোলার পরিকল্পনা করছে তারা। শ্রীপেরামবুদুরে এক বিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয়ে ওই কারখানা তৈরি হবে। বেজিং–ওয়াশিংটন বাণিজ্য যুদ্ধ তো ছিলই, তার মধ্যে মহামারী যুক্ত হওয়ার পরই চীন থেকে কারখানা ধীরে ধীরে সরানোর পরিকল্পনা করছিল ফক্সকন। যা অবশেষে সামনে এল। যদিও ফক্সকন বা অ্যাপল্‌ নিজেরা কিছুই জানায়নি কিন্তু সূত্রের খবর, অ্যাপল্‌–এর তরফে তার গ্রাহকদের কাছে গভীরভাবে অনুরোধ করা হয়েছিলযে আইফোন তৈরির এই কারখানা যেন চীন থেকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।
আগামী তিন বছরে মধ্যে শ্রীপেরামবুদুরে অ্যাপল্‌–এর আইফোন এক্সআর তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা আছে। শুধু ওই মডেলই নয়, চীনের ফক্সকন কারখানায় অ্যাপল্‌–এর অন্য আইফোনের যে মডেল তৈরি হত সেগুলিরও কিছু এবার থেকে ভারতের ওই কারখানাতেই তৈরি হবে। তাইপেই–এ ফক্সকনের সদর দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে, নির্দিষ্ট সংখ্যা ছাড়াও শ্রীপেরাবুদুরের ওই কারখানায় আরও অতিরিক্ত ৬০০০ কর্মসংস্থান হতে চলেছে। বিশদে ব্যাখ্যা না দিলেও ফক্সকনের চেয়ারম্যান গত মাসেই বলেছিলেন ভারতে  তাঁরা বিনিয়োগ বাড়াতে চাইছেন। বেঙ্গালুরুতে এমনিতেই অ্যাপল্‌–এর একটি আইফোন কারখানা আছে। আরও বেশি ভারতে ফোন তৈরির কারখানা তৈরি হলে আমদানি শুল্ক অনেকটাই কম হবে বলে মনে করছে অ্যাপল্‌ কর্তৃপক্ষ।     ‌

জনপ্রিয়

Back To Top