আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ জেলে এখনই শীতবস্ত্র, স্ট্র এবং সিপার দেওয়া হচ্ছে না পার্কিনসন রোগে আক্রান্ত বন্দি স্ট্যান স্বামীকে। আরও সপ্তাহখানেক অপেক্ষা করতে হবে তাঁকে। গত ৮ অক্টোবর রাঁচির বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয় ৮৩ বছরের জেসুইট ধর্মযাজককে। হিংসায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে তাঁকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত। সেই থেকে তালোজা জেলেই রয়েছেন ভীমা–কোরেগাঁও মামলায় অভিযুক্ত স্বামী। 
বহু দিন ধরেই পার্কিনসন রোগে ভুগছেন স্বামী। প্রতিদিনের ব্যবহারের জন্য স্ট্র, সিপার চাই তাঁর। গ্রেপ্তারের সময় তাঁর স্ট্র এবং সিপার কেড়ে নিয়েছিল এনআইএ। এই অভিযোগ তুলে সেসব জিনিস ফেরত দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন স্বামীর আইনজীবী শরিফ শেখ। কেন্দ্রীয় সংস্থার দাবি, ‘‌স্বামী কখনই এনআইএ–এর হেফাজতে ছিলেন না। তাই তাঁর জিনিসপত্র তাদের কাছে নেই। যেহেতু তাঁকে সরাসরি বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছিল, তাই জেল কর্তৃপক্ষের কাছেই আবেদন করতে হবে।’‌ এরপর ফের জেল কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানান স্বামীর আইনজীবী। এবিষয়ে জেল কর্তৃপক্ষের মতামত জানতে চেয়েছে আদালত। আগামী ডিসেম্বর ফের শুনানি।     

জনপ্রিয়

Back To Top