আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌শচিন তেণ্ডুলকারের মেয়ে সারার নামে ভুয়ো টুইটার অ্যাকাউন্ট খোলার অভিযোগে পুলিস এক তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীকে গ্রেপ্তার করল। ধৃতের নাম নীতিন সিসোদে। ৩৯ বছরের সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার নীতিনের কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে ল্যাপটপ, ২টি মোবাইল, রাউটার সহ অন্যান্য জিনিস। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, সারার ভুয়ো অ্যাকাউন্ট খুলে নীতিন কংগ্রেস সুপ্রিমো শরদ পাওয়ারের নামে অপমানজনক ও সম্মানহানি মন্তব্য করে। পুলিস অভিযুক্তকে মুম্বইয়ের আন্ধেরি এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে। 
পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, নীতিনের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির প্রতারণা এবং সম্মানহানি করার ধারা প্রয়োগের সঙ্গে সঙ্গে আইটি অ্যাক্টেও মামলা রুজু করা হয়। অভিযুক্তকে আদালতে পেশ করা হলে বিচারক তাকে ৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পুলিসি হেফাজতে থাকার নির্দেশ দেয়। শচিন তেণ্ডুলকারের ব্যক্তিগত সচিব এ বিষয়ে সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে বলা হয়, কেউ সারা তেণ্ডুলকারের নামে ভুয়ো অ্যাকাউন্ট টুইটারে খুলে তাঁকে অপদস্থ করার চেষ্টা করছে। শচিন নিজেও ওই ভুয়ো অ্যাকাউন্টটি খুলে অবাক হয়ে যান। সাইবার পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, সারার ভুয়ো টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের নামে কুৎসা রটানো হচ্ছিল। রাজনৈতিক দলগুলিকে কটাক্ষ করে চলছিল বিভিন্ন অপমানজনক পোস্ট। 
অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিস টুইটার অ্যাকাউন্টটি খতিয়ে দেখতে শুরু করে। সারার ভুয়ো টুইটারে অনেকেই বিভিন্ন পোস্টে মন্তব্যও করেছেন। কিন্তু সারা তেণ্ডুলকার আদৌও ওই টুইটার অ্যাকাউন্টে সক্রিয় নন। পুলিস টুইটার অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখার পরই নীতিনের খোঁজ পায়। যিনি পেশায় একজন সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। নিজের পরিচয় গোপন রাখতেই সে শচিনের মেয়ের নামে অ্যাকাউন্ট খুলে এ ধরনের কাজ করেছে। এর আগেও ফোনে সারা তেণ্ডুলকারকে হেনস্থা করার অভিযোগে মুম্বই পুলিস পশ্চিমবঙ্গ থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছিল। 

 

সারা তেণ্ডুলকার।
 


জনপ্রিয়

Back To Top